গুজরাট দাঙ্গায় মোদীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলা আইপিএস অফিসারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড!

0
121

গুজরাট দাঙ্গায় রাজ্যের তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন। এটাই তার অপরাধ। ১৯৯০ সালে মুসলমানদের উপর পরিচালিত পরিকল্পিত হত্যাকাণ্ডের মূল হোতা ছিল মোদী। মুসলিমদের উপর যাবতীয় আক্রোশ যাতে হিন্দুরা মিটিয়ে নিতে পারে, দাঁড়িয়ে থেকে মোদী নিজে নির্দেশ দিয়েছিল বলে অভিযোগ করেছিল এই আইপিএস অফিসার সঞ্জীব ভট্ট ।

তাই এখন তিন দশক পুরনো একটি মামলায় সেই আইপিএস অফিসার সঞ্জীব ভট্টকে এবার যাবজ্জীবন সাজা শোনাল সুপ্রিম কোর্ট।

জামনগর থানায় পুলিশি হেফাজতে থাকাকালীন এক বন্দির মৃত্যুতে সঞ্জীব ভট্টের বিরুদ্ধে খুনের মামলা চলছিল। সেই মামলায় তাকে দোষী সাব্যস্ত করে বৃহস্পতিবার যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছে শীর্ষ আদালত।
১৯৯০ সালের ঘটনা। গুজরাটের জামনগর জেলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসাবে মোতায়েন ছিল সঞ্জীব ভট্ট। সেইসময় লালকৃষ্ণ আডবাণী এবং তার সমর্থকদের রথযাত্রাকে কেন্দ্র করে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাধে জামজোধপুর এলাকায়। সেই ঘটনায় প্রায় ১৫০ জনকে আটক করে সঞ্জীব ভট্ট। তাদের মধ্যে প্রভুদাস বৈষ্ণণী নামের এক ব্যক্তিও ছিল। ছাড়া পাওয়ার পর গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে । হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত্যু হয়। হেফাজতে থাকাকালীন পুলিশি নির্যাতনেই প্রভুদাসের মৃত্যু হয়েছে বলে সেইসময় দাবি করে তার পরিবার। পরবর্তীকালে এ নিয়ে থানায় এফআইআরও দায়ের করে প্রভুদাসের ভাই। তাতে সঞ্জীব ভট্ট এবং আরও বেশ কয়েকজনের বিরুদ্ধে নির্যাতনের অভিযোগ তোলা হয়।
তবে মনে করা হয়, আইপিএস অফিসারকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়ার আসল কারণ হল গুজরাট দাঙ্গায় মোদীর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলা।

Facebook Comments

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন