ভারতে রাস্তায় মুসলিমদের নামাজ পড়ার বিরুদ্ধে বিজেপির আন্দোলন!

0
253

শুক্রবার রাস্তায় মুসলিমদের জুমার নামাজ পড়ার বিরোধিতায় এবার পথে নামলো ভারতের পশ্চিমবঙ্গের হাওড়ার বিজেপি যুব মোর্চার নেতাকর্মীরা। রাস্তায় মুসলিমদের শুক্রবারের নামাজের প্রতিবাদে তারা রাস্তা আটকিয়ে হনুমান চালিশা (মন্ত্র) পাঠ করেছে।

ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, হাওড়ার বালিখালে বজরংবলি মন্দিরের সামনে গতকাল শখানেক বিজেপি কর্মী রাস্তায় বসে হনুমান চালিশা পাঠ করে।

বিজেপি যুব মোর্চার হাওড়া জেলা সভাপতি ওমপ্রকাশ সিং বলেছে, ‘যতদিন না রাস্তায় নামাজ পড়া বন্ধ হবে, ততদিন আমরাও রাস্তা আটকে হনুমান চালিশা পড়ব।’

জেলা বিজেপির বক্তব্য, ধর্মীয় রীতিনীতি পালনের থাকলে তা বাড়িতে করাই ভালো। রাস্তা আটকে মানুষকে বিপদে ফেলা উচিত নয়।

ওমপ্রকাশ সিং আরো বলেছে, ‘ধর্মীয় আচার আচরণ পালনের জায়গা হল মন্দির, মসজিদ, গুরুদ্বার বা চার্চ।

তারই প্রতিবাদে প্রতীকী আন্দোলন হিসেবে জিটি রোড বন্ধ করে বিজেপি যুব মোর্চার পক্ষ থেকে পাঁচ বার হনুমান চালিশা পাঠ করা হয়।

বিজেপি যুব মোর্চার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, ভবিষ্যতে রাস্তা জুড়ে নামাজ পড়া বন্ধ না হলে, প্রত্যেক মঙ্গলবার জেলার সমস্ত হনুমান মন্দিরের সামনে রাস্তা বন্ধ করে হনুমান চালিশা পাঠ করা হবে।

খবরে বলা হয়েছে গতকালের বিজেপির প্রতীকী আন্দোলনে পাঁচ মিনিটের জন্য জিটি রোড বন্ধ হয়ে যায়। পাঁচ বার হনুমান চালিশা পাঠ করা হয়। তাতে ব্যাপক যানজট হয়ে যায়।

গেরুয়া শিবিরের হুঁশিয়ারি, রাস্তায় বসে হনুমান চালিশা পাঠের জন্য যদি গ্রেপ্তার করা হয়, তাতেও এই কর্মসূচি থেকে সরবে না দল।

তৃণমূল কংগ্রেস হাওড়া জেলার (সদর) সভাপতি তথা সমবায় মন্ত্রী অরূপ রায় বলেছে, ‘আমরা এই নামাজ জন্মের আগে থেকে দেখে আসছি। এর সঙ্গে অযথাই তৃণমূলকে জড়ানোর চেষ্টা করছে বিজেপি। এটা একটা ধর্মীয় রীতি। বিজেপি এ সব করে রাজ্যে বিশৃঙ্খলার পরিবেশ তৈরি করতে চাইছে।

উল্লেখ্য, ভারতে সাম্প্রতিক সময়ে ইসলাম ও মুসলিমদের উপর একের পর এক আঘাত হেনে চলেছে উগ্র হিন্দু সম্প্রদায়। এর আগে তারা মুসলিমদের মসজিদসমূহেও হামলা করেছে, মুসলিমদেরকে নামাজ আদায় থেকে বিরত রাখার জন্য বহু চেষ্টা তারা করেছে। এই হিন্দুত্ববাদীরাই মসজিদ তৈরিতে বাধা দিচ্ছে, আর এর কারণেই মসজিদে জায়গা না হওয়ায় রাস্তায় নামাজ আদায় করতে বাধ্য হচ্ছেন ভারতীয় মুসলিমরা।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন