ঘুষ না দেওয়ায় দুই বছরেও মিলেনি আবেদিত ডিসিআর!

0
112

ঘুষ এখন সবচেয়ে বড় হাতিয়ার হয়ে দাঁড়িয়েছে। ঘুষ ছাড়া কোন কাজই ভালভাবে করানো যায় না। ভুগতে হয় নানা হয়রানিতে। অল্প সময়ের কাজ আটকে রাখা হয় বছরের পর বছর। অন্যান্যদের মত এমনই এক ঘটনার শিকার হয়েছেন এক সেবাপ্রার্থী।

ঘুষ প্রদান না করায় দুই বছর পূর্বে আবেদিত ডুপ্লিকেট কার্বন রশিদ (ডিসিআর) মিরপুর ভূমি অফিসে আটকে ছিল দু্ই বছর।

মঙ্গলবার দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এক অভিযানে এর সত্যতা মিলেছে।

দুদক জানায়, ২০১৭ সালে মিউটেশনের জন্য আবেদন করা সত্বেও চাহিদামত অনৈতিক অর্থ প্রদান না করায় এক সেবাপ্রার্থীকে হয়রানি করা হচ্ছে। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মাহবুবুল আলমের নেতৃত্বে একটি এনফোর্সমেন্ট টিম আজ অভিযান পরিচালনা করে। সরেজমিন অভিযানে দুদক টিম দুই বছর পূর্বে আবেদিত ডুপ্লিকেট কার্বন রশিদ (ডিসিআর) উদ্ধার করে, যা ঘুষ প্রদান না করায় সেবাপ্রার্থীর নিকট সরবরাহ করা হচ্ছে না বলে প্রতীয়মান হয়। এছাড়া দুদক টিম অবৈধ অর্থ লেনদেনের জন্য ব্যবহৃত একটি রেজিস্ট্রার উদ্ধার করে।

এদিকে নানাবিধ অনিয়মের অভিযোগে চট্টগ্রাম বিআরটিএ-তে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে সিএনজি রিপ্লেসমেন্ট, গাড়ির নতুন নম্বর প্লেট প্রদান ইত্যাদি সেবাপ্রদানে দুর্নীতি, অনিয়ম ও হয়রানির অভিযোগে অভিযানে দালালরা পালিয়ে যায়।

অন্যদিকে, টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর (এলজিইডি) কর্তৃক নির্মাণাধীন একটি রাস্তায় নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহারের অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করে দুদক। সমন্বিত জেলা কার্যালয় টাঙ্গাইল হতে এ অভিযানে অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পায় দুদক টিম।

সূত্র: রাইজিংবিডি

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন