মালির বিমান ঘাঁটিতে মুজাহিদদের হামলায় ৩ ফরাসী সেনা নিহত, আহত আরো ৬ কুফ্ফার সেনা!

0
280

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মালির “গাও” শহরে অবস্থিত কুফ্ফার বাহিনীর সামরিক বিমান ঘাঁটিতে গত ২২ই জুলাই একটি সফল ইস্তেশহাদী ও ইনগিমাসী হামলা চালিয়েছেন আল-কায়দা শাখা “জামাআত নুসরাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমীন” এর ৩জন জানবায মুজাহিদ।
এই অপরেশনে অংসগ্রহণকারী মুজাহিদগণ হলেন- ১) শুয়াইব আল-আনসারী (ইস্তেশহাদী) ২) জাফর আল-আনসারী ও ৩) আব্দুল জাব্বার আল-আনসারী।

আল-কায়দা মুজাহিদগণ ঘাঁটিতে এমন সময় হামলা শুরু করেন যখন কুফ্ফার বাহিনীর সদস্যদের সামরিক প্রশিক্ষণ চলছিল। প্রথমে জাফর আল-আনসারী ও আব্দুল জাব্বার আল-আনসারী এই দুইজন ইনগিমাসী মুজাহিদ অতর্কিত হামলা চালিয়ে শত্রু বাহিনীর পুরো মনযোগ তাদের দিকে ফিরিয়েনেন, পরে ইস্তেশহাদী মুজাহিদ শুয়াইব আল-আনসারী রহ. শক্তিশালী বোমা ভর্তি গাড়ি নিয়ে সামরিক বিমান ঘাঁটিতে ঢুকে পরেন, এবং নিজের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানেন, সাথে সাথেই প্রকম্পিত হয়ে উঠে পুরো সামরিক ঘাটি। এসময় মুজাহিদদের হামলায় কুফ্ফার বাহিনীর কত সেনা নিহত বা আহত হয়েছে তা বুঝা যায়নি, কেননা তখন ঘাটিটি বোমার আঘাতে অন্ধকারচ্ছন্ন হয়ে পরে। তবে মুজাহিদগণ ৩ ফরাসি (ফ্রান্স) সেনা নিহত ও আরো ৬ ইস্তুনিয়ান সেনা আহত হয়েছে বলে জানায়েছেন। তবে এই হামলায় হতাহতের সর্বশেষ সংবাদ জানা যায়নি, যেহেতু ফ্রান্স কখনোই নিজেদের হতাহত সেনা বা ক্ষয়ক্ষতির বিষয় প্রকাশ করেনা, বরং এবিষয়গুলো তারা গোপন করে ফেলে এবং সাংবাদিকদেরকেও তথ্যের জন্য ঘটনাস্থল যেতে দেওয়া হয়না।

এদিকে ইস্তেশহাদী হামলার পর কুফ্ফার বাহিনীর সাথে লড়াইয়ের এক মহুর্তে হয়তো ইনসাআল্লাহ শাহাদাত বরণ করেন আব্দুল জাব্বার আনসারী, অন্যদিকে জাফর আল-আনসারী হাফিজাহুল্লাহ গনিমত নিয়ে সামরিক ঘাঁটি হতে নিরাপদে ফিরে আসতে সক্ষম হন।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন