তাওহীদের ছায়াতলেই আজাদি পেতে চান কাশ্মীরিরা!

0
422

কাশ্মীর পরিণত হয়েছে এক বিশাল কারাগারে। মুশরিক হিন্দুত্ববাদীদের আগ্রাসনে কাশ্মীর আজ অবরুদ্ধ। কাশ্মীরিদের সব ধরণের অধিকার কেড়ে নিয়ে ঘরবন্দী করে রেখেছে মুশরিক হিন্দু সেনারা। খাবার, চিকিৎসাসহ সকল ধরণের মৌলিক চাহিদার অতি সংকটে দিন অতিবাহিত করছেন মুসলিমরা। হিন্দুদের এরূপ আগ্রাসনের বিরুদ্ধে তাই উত্তাল হয়ে ওঠে কাশ্মীর উপত্যকা।

বিবিসি বাংলা’র তথ্য মতে, সম্প্রতি কাশ্মীরে স্থানীয়রা বিক্ষোভ শুরু করে। বেশ বড় আকারের ঐ বিক্ষোভে সমবেত জনতার ওপর ছররা গুলি ছোঁড়ে ভারতীয় হিন্দুত্ববাদী মুশরিক সেনাবাহিনী। বিবিসি জানায়, তারা এই খবর প্রকাশ করলে প্রথমে ভারত অস্বীকার করলেও পরবর্তীতে কেবল বিক্ষোভের কথা স্বীকার করে। কিন্তু বিবিসি সেই বিক্ষোভে গুলি ছোঁড়ার ভিডিও প্রকাশ করে। সেখানে দেখা যায় হাজার হাজার কাশ্মীরি জনগণ বিক্ষোভের জন্য সমবেত হয়। সেই সময় তাদের ওপর ভারতীয় সেনারা ছররা গুলি ছোঁড়ে। এসময় বিক্ষোভকারীদের গুলি এড়াতে মাটিতে শুয়ে পড়তে দেখা যায় কাশ্মীরিদের।

বিবিসি জানায়, তারা এই খবর প্রকাশ করলে ভারত বিষয়টি অস্বীকার করে। শুধু তাই নয়, এই সংবাদের ওপর ভিত্তি করে বিবিসিকে তোপ দাগে ভারতীয় জনগণ। পরে বিবিসি তাদের ওয়েবসাইটে কাশ্মীরের সেই বিক্ষোভের ভিডিও প্রকাশ করে। যেখানে বিক্ষোভকারীরা বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। তাদের সর্বোচ্চ উচ্চারিত বাক্য ছিল ‘উই ওয়ান্ট ফ্রিডম।’ এছাড়াও আল্লাহু আকবার ধ্বনিতে প্রকম্পিত করে সমস্ত এলাকা।

বিক্ষোভে ভারতকে ফিরে যাওয়ার কথাও বলা হচ্ছিল। উচ্চারিত হচ্ছিল, ‘গো ব্যাক ইন্ডিয়া।’

প্রকাশিত ভিডিওতে দেখা যায় বিক্ষোভ সমাবেশে একজন চিৎকর করে বলছিলেন, ‘আপ কিয়া চাহতেহে?’ বাকিরা সমস্বরে গলা মিলিয়ে বলছিলেন, ‘আজাদি’;  আবার ওইজন বলছিলেন, ‘আজাদি কা মতলব কিয়া’,  বাকিরা সমস্বরে বলছিলেন  ‘লা ইলাহা ইল্লাল্লাহ।’

এভাবে, কাশ্মীরে ইসলামী শাসন ফিরিয়ে আনার মাধ্যমে আজাদি কামনা করেন কাশ্মীরের মুসলিমগণ। তাওহীদের ছায়াতলেই প্রকৃত আজাদি আছে বলে মনে করেন তারা।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন