সিরিয়ায় মুজাহিদদের সম্মিলিত অভিযানে ৪০০ এরও অধিক কুফ্ফার ও মুরতাদ সেনা হতাহত।

0
331

সিরিয়া বা শাম, মুমিনদের জন্য এক বড় আশ্রয়স্থল, যার বরকতের জন্য আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম দোআ’ করেছেন। সেখানে সংগঠিত হবে আল-মারহামাতুল কুবরা বা তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের অন্যতম ভয়াবহ যুদ্ধ। বলা হয় হাদীসে বর্ণিত সেই মালহামাতুল কুবরার ময়দানই প্রস্তুত হচ্ছে শামে। সেখানে বর্তমানে প্রতিনিয়ত যুদ্ধের তীব্রতা আরো বৃদ্ধি পাচ্ছে, যেখানে ব্যবহৃত হচ্ছে সকল ধরণের অত্যাধুনিক ও ধ্বংসাত্মক আগ্নেয়াস্ত্র।
সিরিয়ায় এখন চলছে কুফর ও ইসলাম, হক ও বাতিল, মুজাহিদ বনাম কাফের বাহিনীর মাঝে এক রক্তক্ষয়ী লড়াই। উভয় বাহিনীই তাদের পূর্ণ শক্তি ব্যয় করছে এই যুদ্ধে।

এই যুদ্ধের ময়দানটিতে গতকাল অর্থাৎ ২৩ আগস্ট মুজাহিদদের বিপক্ষে কুফ্ফার ও মুরতাদ বাহিনী প্রায় ৮৯৩টি অভিযান পরিচালনা করেছে। যার মধ্য হতে ৬৫০টি অভিযানই চালানো হয়েছে লাতাকিয়া সিটিতে। বাকিগুলো চালানো হয়েছে দক্ষিণ হামা ও উত্তরাঞ্চলীয় হামা সিটিতে।

সর্বশেষ সংবাদ মতে উত্তরাঞ্চলীয় হামা ও দক্ষিণ ইদলিবের অবরুদ্ধ এলাকা গতকাল পরিপূর্ণভাবে দখলে নিয়ে নিয়েছে কুফ্ফার রাশিয়া, ইরান ও কুখ্যাত নুসাইরী শিয়া জোট বাহিনীগুলো। তবে দখল করার পূর্বেই মুজাহিদগণ ঐসব এলাকা হতে সকল জনসাধারণকে ইদলিবে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিতে সক্ষম হয়েছেন, যারা এখন উন্মুক্ত খোলা আকাশের নিচে বসবাস করছেন।

নুসাইরী সন্ত্রাসীদের তথ্য মতে, গতকাল দক্ষিণ ইদলিব ও হামায় মুজাহিদদের সাথে তীব্র লড়াইয়ে কুখ্যাত নুসাইরী শিয়া মুরতাদ বাহিনীর ৫০ সেনা নিহত ও ৯০ সেনা আহত হয়েছে। তবে হতাহত মুরতাদ সেনাদের এই সংখ্যা আরো কয়েকগুণ বেশি হবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। কেননা সেখানে গতকাল মুজাহিদগণ তাদের সবটুকু দিয়েই নুসাইরীদের উপর কঠিন থেকে কঠিনতর হামলা চালিয়েছেন।

অন্যদিকে লাতাকিয়া সিটিতে বিশেষত কাবিনাহ শহরে গতকাল থেকে তীব্র হামলা চালাতে শুরু করেছে কুফ্ফার ও মুরতাদ বাহিনী, ইদলিব ও হামার পর এবার তাদের লক্ষ্য লাতাকিয়ার মরণফাঁদ খ্যাত এই সিটিটি। যেখানে বারবার অভিযান চালিয়ে ব্যর্থ হয়েছে কুফ্ফার ও মুরতাদ বাহিনী।

এই অঞ্চলটিতে বর্তমানে কঠিন ও মজবুত অবস্থানে দাঁড়িয়ে আছেন কাফেরদের জন্য আতংক ক্ষুদ্র একটি দল, আল-কায়দার হাতে বায়াতবাদ্ধ তানযিম হুররাস আদ-দ্বীন ও তাদের অপারেশন রুমের খোদা ভীরু জানবায লড়াকু বীর মুজাহিদগণ।

নুসাইরীদের নিজেদের সংবাদ মাধ্যমই এ কথা স্বীকার করে যে, তারা গতকাল সেখানে তাদের সবচাইতে শক্তিশালী ব্যাটালিয়ন নিয়ে অভিযান চালিয়েছে। কিন্তু তারপরেও সেখানে তারা কোন বিজয় পায়নি। তাদেরই দেওয়া তথ্য মতে গতকাল লাতাকিয়া সিটিতে মুজাহিদদের তীব্র প্রতিরোধ যুদ্ধের ফলে নুসাইরীদের ৬০ সেনা নিহত ও ২০০ সেনা আহত হয়েছে। নিহত হয়েছে আরো ৭ উচ্চপদস্থ কমান্ডার, যাদেরকে বাচাই করে এই যুদ্ধের নেতৃত্ব দেয়ার জন্য পাঠানো হয়েছিল। যদিও হতাহতের বাস্তব সংখ্যা আরো অনেক বেশি।

এছাড়াও মুজাহিদদের হামলায় কুফ্ফার ও মুরতাদ বাহিনীর ৪টি ট্যাংক, ৩টি বোলডুজার, রাশিয়ায় তৈরী একটি অত্যাধুনিক সামরিকযান ধ্বংস হয়ে যায়।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন