মৌলভীবাজারে সন্ত্রাসী ছাত্রলীগের নেতৃত্বে দুই স্কুলছাত্রের ওপর হামলা

0
269

মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলার জয়চন্ডী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আরেফিন তায়েফের নেতৃত্বে দুই স্কুলছাত্রের ওপর হামলা চালিয়েছে। ২৩ সেপ্টেম্বর সোমবার বিকেলে স্থানীয় দিলদারপুর উচ্চ বিদ্যালয় ছুটির পর বহিরাগত চিহ্নিত বখাটে আরেফিন তায়েফের নেতৃত্বে হামলায় ২ স্কুলছাত্র আহত হয়েছে। আহত স্কুলছাত্ররা বর্তমানে কুলাউড়া হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আহত স্কুলছাত্র ও স্থানীয় লোকজন জানান, বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্র শোভন ও জাহিদের মধ্যে ক্লাসে প্রবেশ নিয়ে পূর্ব থেকে বিরোধ চলছিল। রবিবার বিদ্যালয়ে একই ঘটনার জেরে শোভন একই ক্লাসের জাহিদ, মাজহার, নাঈম, শাফি, মিজানকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়। তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটির একপর্যায়ে শোভন তাদের মারধর করে। তারাও শোভনকে পাল্টা মারধর করে। ছাত্ররা বিষয়টি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও অন্যান্য শিক্ষকদের জানালে তারা বিষয়টির মীমাংসা করে দেন।

কিন্তু মীমাংসা হবার পর নবম শ্রেণির ছাত্র শোভন বিষয়টি তার চাচাতো ভাই এলাকার চিহ্নিত বখাটে ছাত্রলীগ নেতা আরেফিন তায়েফকে জানায়। তায়েফ বিষয়টি শুনে তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠে। এ সময় সে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক দিবাকর দাসকে ফোন দিয়ে দেখে নেবার হুমকি দিয়ে বলে ‘আমি ছাত্রলীগ নেতা, আমাকে আপনি চিনেন না’। পরদিন স্কুল ছুটির পর জয়চন্ডী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আরেফিন তায়েফের নেতৃত্বে ৪টি মোটরসাইকেলে ৯ জন বহিরাগত সন্ত্রাসী বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ওপর অতর্কিতে হামলা চালায়। সন্ত্রাসীরা নবম শ্রেণির ছাত্র মির্জান আলী (১৫) ও জামিল আহমদ (১৫) কে কিল-ঘুষি মেরে ও লোহার পাইপ দিয়ে এলোপাতাড়ি মারধর করে পালিয়ে যায়।

ছাত্রলীগের নামে বিভিন্ন জায়গায় চাঁদাবাজি, রাতের আধারে ছিনতাই ও মাদক কারবারের সাথে দীর্ঘদিন থেকে জড়িত।

উল্লেখ্য, জয়চন্ডী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের  সভাপতি আরেফিন তায়েফ একটি ছিনতাই ও ধর্ষণ মামলার ও আসামী।

সূত্র: কালের কণ্ঠ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন