কাশ্মীরে ৫০ হাজার মন্দির নির্মাণ করবে দখলদার ভারতীয় মালাউন সরকার!

0
383

গত ২৩শে সেপ্টেম্বর বেঙ্গালুরুতে সাংবাদিক বৈঠকে উগ্র হিন্দুত্ববাদী ক্ষমতাসীন সন্ত্রাসী দল বিজেপির এক মন্ত্রী দাবি করে যে, কাশ্মীরে বছরের পর বছর ধরে বন্ধ হয়ে রয়েছে প্রায় ৫০ হাজার মন্দির। সেই মন্দিরগুলো পুনরায় নির্মাণ বিষয়েই এবার ভাবনা-চিন্তা শুরু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। তবে আপাতত মন্দিরগুলো নিয়ে সার্ভে করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

ভারতীয় মালাউনদের ক্ষমতাসীন সন্ত্রাসী দল বিজেপি গত ৫ আগস্ট জম্মু-কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা রদ করে, এরপর থেকেই  মালাউনদের সন্ত্রাসী বাহিনীগুলো বিভিন্ন ধরণের নির্যাতন চালিয়ে আসছে জম্মু-কাশ্মীরে বসাবাসরত মুসলিমদের উপর। তাদের উপর একের পর এক আরোপ করা হতে থাকে বিভিন্ন ধরণের নিষেধাজ্ঞা, জারি করা হয় কারফিউ। বন্দি করা হয় প্রায় ১৪ হাজার কাশ্মীরি শিশু-কিশোর, যুবকদের। এমনকি বন্দী হওয়া কোন কোন ছেলের বয়স ১৪ বছরেরও কম বলে জানা যায়। বন্দীদেরকে শত শত মাইল দূরে ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের অজ্ঞাত কারাগারগুলোতে বন্দি করে রাখা হচ্ছে। এই ধারা এখনো চলমান।

এমন এক সন্ত্রাসী আর অবৈধ কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়েই এবার ক্ষমতাসীন সন্ত্রাসী দল বিজেপির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জি কিষান রেড্ডি দাবি করে যে, কাশ্মীরে বছরের পর বছর ধরে বন্ধ হয়ে রয়েছে প্রায় ৫০ হাজার মন্দির। সেই মন্দিরগুলো পুনরায় নির্মাণ বিষয়েই এবার ভাবনা-চিন্তা শুরু করেছে কেন্দ্রীয় সরকার।

কথা হচ্ছে আদৌ কি কাশ্মীরে ভারতীয় মন্ত্রীর কথা মত ৫০ হাজার মন্দির ছিল!? নাকি এটা নতুন আরেক চক্রান্ত কাশ্মীরি মুসলিমদের বিরুদ্ধে!? ধারণা করা হচ্ছে, কাশ্মীরের মুসলিমদের তৈরি করা হাজার হাজার মসজিদকে মন্দির নাম দিয়ে চালিয়ে দিতে পারে বাবরি মসজিদের ধ্বংসকারী সন্ত্রাসী হিন্দুত্ববাদী গোষ্ঠী।  কেননা, এই সন্ত্রাসী হিন্দুরা চুরি-বাটপারিতে বেশ পরিচিতি লাভ করেছে। এর আগে মুসলিমদের ঐতিহ্যবাহী বাবরি মসজিদকে মন্দির দাবি করে মসজিদটি গুড়িয়ে দিয়েছিল সন্ত্রাসী হিন্দুত্ববাদীরা।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন