রাসূলের (সা.) সম্মানের দাবিতে রণক্ষেত্র ভোলা, পুলিশের হামলায় নিহত ৫জন মুসলিম

1
937

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এক উগ্র হিন্দু মহান আল্লাহ এবং মুসলিমদের হৃদয়ের স্পন্দন মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ মেসেজ দিয়েছে। তার এ নিকৃষ্ট কর্মকাণ্ডের প্রতিবাদে বাংলাদেশের ভোলা জেলার বোরহানউদ্দিনে সমবেত হওয়া তাওহীদবাদী মুসলিমদের উপর আধুনিক অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হিংস্র মনোভাব নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়ে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাসী পুলিশ বাহিনী। পুলিশের ঐ নৃশংস হামলায় চারজন তাওহীদবাদী মুসলিম নিহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে ঢাকা টাইমস নামক বার্তাসংস্থা। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরো প্রায় শতাধিক মুসলিম।

ভোলার সন্ত্রাসী পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার গণমাধ্যমকে তিনজনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে। তবে হাসপাতাল সূত্রে চারজনের খবর নিশ্চিত করেছেন ঢাকা টাইমসের ভোলা প্রতিনিধি।

নিহতরা হলেন, শাহিন, মাহবুব, মাহফুজ ও মিজান। এদের মধ্যে একজন কলেজছাত্র এবং একজন মাদ্রাসাছাত্র বলে জানা গেছে।

তবে শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত ৫জন নিহত হয়েছেন বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে। আরো বেশ কয়েকজনের অবস্থাও আশংকাজনক।

স্থানীয় বাসিন্দা ও পুলিশের বরাত দিয়ে বার্তাসংস্থা মানবজমিন জানায়, উগ্র হিন্দু বিপ্লব চন্দ্র তার ফেসবুক আইডি থেকে বন্ধু তালিকার বেশ কয়েকজনের কাছে আল্লাহ এবং রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে নিয়ে কুরুচিপূর্ণ ভাষায় গালি দিয়ে মেসেজ পাঠায়।

শাতিমে রাসূল উগ্র হিন্দু বিপ্লব চন্দ্র শুভ বোরহানউদ্দিন উপজেলার কাচিয়া ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের চন্দ্র মোহন বৈদ্দের ছেলে।  মুসলিমদের হৃদয়ের স্পন্দন নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে নিয়ে তার করা কটুক্তিকে কেন্দ্র করে সাধারণ মুসুল্লিদের ব্যানারে আজ সকাল ১০টায় বিক্ষোভের ডাক দেয়া হয়। সকাল থেকে বোরহানউদ্দিন উপজেলার গ্রামগঞ্জ থেকে মুসুল্লিরা শহর অভিমুখে আসতে থাকেন।

আর এ অবস্থাতেই হিন্দুত্ববাদের দালাল আল্লাহর দুশমন ভোলার পুলিশ সুপারের নির্দেশে তাওহীদী মুসলিম জনতার উপর হিংস্রভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ে সন্ত্রাসী পুলিশ বাহিনী। এসময় পুলিশের নৃশংসতা মনে করিয়ে দেয় ৫ই মের কালোরাতে নবী প্রেমিক তাওহীদী জনতার উপর শাপলা চত্বরে চালানো গণহত্যার কথা।

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন