গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রীর ঘোষণা শীঘ্রই রাম মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করবে মোদী সরকার!

0
321

চল্লিশ দিন টানা  চলার পর শেষ হয়েছে অযোধ্যার বিতর্কিত জমি মামলার শুনানি। কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই বেরোতে পারে রায়। অযোধ্যার মন্দির হবে, না মসজিদ হবে, নাকি পৃথক পৃথক জমিতে কাছাকাছি দুটিই সম্ভব? এসব প্রশ্নের জবাব পাওয়ার জন্য গোটা দেশ অপেক্ষায় আছে। আবার লখনউয়ের আদালতেও চলছে আর এক মামলা। বাবরি মসজিদ ধ্বংসে অভিযুক্তদের শাস্তির মামলা।

এদিকে, ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের বরাতে জানা যায়, যখন অযোধ্যা মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায়ের দিকে তাকিয়ে আছে গোটা দেশ, ঠিক সেই আবহে রাম মন্দির নিয়ে মন্তব্য করে শোরগোল ফেলে দিয়েছে মোদীর রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী সন্ত্রাসী  বিজয় রুপানি। আত্মবিশ্বাসের সুরে গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছে, শীঘ্রই রাম মন্দির নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে। পাশাপাশি রুপানি এও বলেছে, পাক অকাশ্মীর শীঘ্রই অধিগ্রহণ করবে  হানাদার মোদী সরকার।

পঞ্চমহল জেলায় একটি সভায় গুজরাতের মুখ্যমন্ত্রী বলেছে, ‘‘যেভাবে কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বাতিল করে প্রতিশ্রুতি পূরণ করেছে সন্ত্রাসী  বিজেপি, তেমনই রাম মন্দিরের স্বপ্নও পূরণ করা হবে’’।

এসবের মধ্যেই গোটা দেশজুড়ে, বিশেষত উত্তর প্রদেশের সাধু-সন্ত তথা সংঘ পরিবার, বিজেপি সমর্থক, হিন্দুত্ববাদী রামভক্ত জনসমাজ, নিশ্চিত হয়ে বসে আছে যে সুপ্রিম কোর্ট রাম মন্দির নির্মাণের পক্ষেই রায় দিতে চলেছে। অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণের জন্য রাজস্থান ও গুজরাট থেকে পাথর আনা শুরু হয়ে গেছে। করসেবকপুরমে এক মডেল রাম মন্দির নির্মাণ হয়ে গেছে। অযোধ্যার কাছেই এই এলাকায় কাতারে কাতারে মানুষ আসছে এই মন্দির দেখার জন্য।

মোদী ও বিজেপির প্রবল সংখ্যাগরিষ্ঠতা। শুধু তাই নয়, এই গুরু-শিষ্যের মধ্যে কিন্তু একটা ‘কারেজ অফ কনভিকশন’ আছে। মোদী যা মনে করে, তাই করে। একটা মত আছে, এভাবে স্টিমরোলার দিয়ে মতামত চাপানোর চেষ্টা গোটা দেশের ওপর, এটা কথিত গণতন্ত্রের নৈরাজ্য। মোদী দেশের আর্থিক উন্নয়নকে অগ্রাধিকার না দিয়ে কাশ্মীর বা অযোধ্যা, হিন্দুত্ব বা পাক স্বাধীনতাকামী বিষয় নিয়েই ব্যস্ত। এর ফলে কী হচ্ছে? এর ফলে দেশের অগ্রগতি হচ্ছে না। দেশের মানুষকে হিন্দুত্বর অ্যাড্রিনালিন দেওয়া হচ্ছে। চিরকাল এভাবে চলতে পারে না। অদূর ভবিষ্যতে একদিন না একদিন এই কৃত্রিম কর্তৃত্বের সৌধ তাসের ঘরের মতোই ভেঙ্গে লুটিয়ে পড়বে।

 

 

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন