সন্ত্রাসী আওয়ামীলীগ কর্মীর কার্যালয় থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, মাদক ও যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট উদ্ধার

0
279

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর এবং ওয়ারী থানা সন্ত্রাসী আওয়ামী লীগের সদস্য ময়নুল হক মনজুর কার্যালয় থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, বিভিন্ন ধরনের মাদক ও বিপুল পরিমাণ যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে৷

টিকাটুলীর রাজধানী সুপারমার্কেটের অদূরে তার বাসা থেকে দুটি আগ্নেয়াস্ত্র, ইয়াবা, গাঁজা, বিদেশি মদ, বিয়ার, ফেনসিডিল ও বিপুল পরিমাণ যৌন উত্তেজক ট্যাবলেট পাওয়া যায়। এ ছাড়া বাসা থেকে মদ, বিয়ার ছাড়াও বেশ কিছু জমির দলিল ও জমি-সংক্রান্ত কাগজপত্র পাওয়া যায়।

চাঁদাবাজির মাধ্যমে অর্জিত টাকা মনজু যুক্তরাষ্ট্রে স্ত্রী-সন্তানের কাছে পাঠায় বলে অভিযোগ রয়েছে।

গোপীবাগের ভোলানন্দগিরি ট্রাস্টের জায়গা সে দখল করে প্রতি মাসে লাখ লাখ টাকা ভাড়া আদায় করে। সেখানে একটি হাসপাতাল করার কথা থাকলেও মনজু সেখানে অ্যাপার্টমেন্ট তৈরি করার উদ্যোগ নিয়েছিল। মনজুর বাসায় থাকা তার নিকটাত্মীয় সুমি বেগম জানান, কাউন্সিলর এই বাসায় একা থাকেন। তার দুই ছেলে, এক মেয়ে ও স্ত্রী ১৮ বছর ধরে আমেরিকায় বসবাস করছে। মনজু নিয়মিত আমেরিকায় যাতায়াত করে।

সমকালের বরাতে জানা যায়, মনজুর বৈধ কোনো আয়ের উৎস নেই। সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি ও দখলবাজিই মূলত তার আয়ের উৎস। মাদক কারবারেও তার সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ দীর্ঘদিনের। সন্ত্রাস, দখলবাজি ও চাঁদাবাজির একাধিক মামলার আসামি সে৷

রাজধানী সুপারমার্কেটের ব্যবসায়ীরা জানান, প্রায় দশ বছর ধরে মার্কেটের সভাপতির পদ দখল করে আছে মনজু। নানা কৌশলে সে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি করে। চাঁদার টাকা দিতে কেউ অস্বীকার করলে তার ওপর নেমে আসে নির্যাতন। এমনকি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তালা লাগিয়ে দেয়। সম্প্রতি মার্কেটের এক পাশে দোতলা করার ঘোষণা দিয়ে প্রতি দোকানের পজিশন ১১ লাখ টাকায় বিক্রি করেছে। এভাবে ১১০টি দোকানের পজিশন বিক্রি করেছে মনজু।

স্থানীয় লোকজন ও মার্কেটের ব্যবসায়ীরা জানান, সন্ত্রাসী ওয়ার্ড কাউন্সিলর মনজুর বিরুদ্ধে দখল, চাঁদাবাজি, অবৈধভাবে মার্কেটের কমিটিতে থাকা, দোকানিদের ওপর জুলুমসহ নানা অভিযোগ রয়েছে। এসব অভিযোগে বিভিন্ন সময়ে মনজুর বিরুদ্ধে খবর প্রকাশিত হয়েছে। একাধিকবার রাজধানী সুপারমার্কেটের একাধিক দোকানি তার বিরুদ্ধে থানা পুলিশ, র‌্যাব ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর অভিযোগ দিয়েছে। মনজু সেগুলো কখনও আমলেই নেয়নি। সে সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে বিভিন্নভাবে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদাবাজি করে আসছে৷

 

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন