মুসলমানদের কাশ্মিরে বড় ধরনের অভিযানে নামছে হিন্দুত্ববাদী ভারতীয় মুশরিক বাহিনী

0
512

অবৈধভাবে অধিকৃত কাশ্মীর উপত্যকায় কথিত সন্ত্রাস দমনের নামে ভারতের সন্ত্রাসী প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বড় ধরনের অভিযান শুরু করতে চলেছে বলেই আভাস পাওয়া যাচ্ছে। এই প্রথম সেখানে সন্ত্রাসবিরোধী অভিযান চালানোর নামে একযোগে মোতায়েন করা হয়েছে সন্ত্রাসী সেনা, নৌবাহিনী ও বিমান বাহিনীকে। ওয়ান ইন্ডিয়া ও ইন্ডিয়া টুডে ।

আর্মির প্যারা স্পেশাল ফোর্স, নেভির মেরিন কমান্ডোস (এমএআরসিওএস) এবং ইন্ডিয়া এয়ার ফোর্সের গরুড় বাহিনীকে কাশ্মিরে নিয়োগ করা হয়েছে। প্রতিরক্ষার তিনটি বাহিনীকে মিশিয়ে গঠন করা হয়েছে আর্মড ফোর্সেস স্পেশাল অপারেশন ডিভিশন (এএফএসওডি)। এ ডিভিশনকে এই প্রথমবার মোতায়েন করা হলো কাশ্মিরে।

মুক্তিকামী কাশ্মিরের যেসব জায়গায় বিশেষভাবে ভারত সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন হয় বলে চিহ্নিত করা হয়েছে, সে জায়গাগুলোতেই আপাতত একযোগে কাজ করবে তিন বাহিনী। সন্ত্রাসী সেনা মোতায়েন করা হয়েছে শ্রীনগর এবং গ্রামীণ কয়েকটি এলাকার কাছে। সন্ত্রাসী মেরিন কমান্ডোদেরকে মোতায়েন করা হয়েছে উলার লেকের আশপাশের এলাকায়। আর গরুড় বাহিনীকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে লোলাব ও হাজিন এলাকায়।

কথিত যৌথ এ বিশেষ বাহিনী এরই মধ্যে কাজও শুরু করেছে। সন্ত্রাসী সেনারা ওই এলাকায় ভারতীয় আর্মি রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের সাথে মিলে তাদের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালাবে। এবারই প্রথম এই তিনটি স্পেশাল সার্ভিসকে যৌথভাবে মোতায়েন করল কট্টর হিন্দুত্ববাদী ভারত সরকার।

উল্লেখ্য, ভারতীয় সংবিধান থেকে কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা সংবলিত ৩৭০ নং ধারা অন্যায়ভাবে বাতিলের পর অতিরিক্ত সন্ত্রাসী সেনা মোতায়েন রয়েছে দেশটিতে। সেখানে স্বাধীনতাকামীরা বড় ধরনের আন্দোলন গড়ে তুলতে পারে, এমন উদ্বেগ থেকেই সন্ত্রাসী ভারত সরকার সেখানে আরো কড়া অবস্থানে গেল।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন