নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভকারী মহিলাদের উপর মালাউন পুলিশের নির্যাতন

0
153

রাজধানী নয়াদিল্লিতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভকারী মহিলাদের নির্যাতন ও গুরুতর আহত করেছে ভারতীয়  মালাউন  পুলিশ।

নয়াদিল্লির একটি হাসপাতালে ভর্তি মহিলারা গণমাধ্যমকে বলেছেন যে,  পুরুষ পুলিশ সন্ত্রাসীরা তাদের উপর নির্যাতন চালিয়েছিলেন।

একজন মহিলা গণমাধ্যমকে বলেছেন: “আমি পুলিশকে বলেছি যে আমাকে ছেড়ে দাও, তখন  মহিলা পুলিশ আমাকে ধাক্কা দেয় যার ফলে সাথে সাথে আমি পড়ে যাই, পরে একজন পুরুষ অফিসার আমার  বুক ও গোপনাঙ্গসহ শরীরে  বুট দিয়ে আঘাত করে। ফলে শরীরের বিভিন্ন স্থানে বুটের আঘাতে ফোলে যায়। যেগুলো আমি ডাক্তারকে দেখিয়েছি।

ব্যথার অবস্থা সম্পর্কে তিনি বলেন,  ‘আমার অপারেশন হয়েছে এবং সেলাই করা স্থানে অনেক ব্যথা হচ্ছে। পুলিশ আমাকে প্রচুর আঘাত করেছে’।

পুলিশ সহিংসতার শিকার আরেকজন বলেছিলেন, “আমরা সবাই সামনের সারিতে ছিলাম, তারা আমাদের যৌন হয়রানি করছিল এবং তারা আমাদের লাথি মেরে পেটে আঘাত করার চেষ্টা করেছিল,”। দিল্লি পুলিশ বেশ কয়েকজন মহিলাকে আহত করেছে যাদের হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়েছে ।

এক মহিলা বলেছেন, আমরা সংসদের দিকে যাত্রা করেছিলাম কিন্তু পুলিশ আমাদের সাথে দুর্ব্যবহার ও চাপ দিতে শুরু করেছিল”। তিনি বলেন, “বেশিরভাগ পুরুষ পুলিশ সদস্য আমাদের ধাক্কা দিচ্ছিল, যে মেয়েগুলো পড়ে যাচ্ছিল, পুলিশ তাদের হাত ও পায়ে চড়াচ্ছিল এবং তারা অনেক মহিলার গোপনাঙ্গতেও  আঘাত করেছিল।”

 

আহত মহিলা বলেছিলেন, “আমি যখন গ্রেপ্তারের পরে বাসে বসেছিলাম তখন পুলিশ এসে আমাকে থাপ্পড় মারল এবং মহিলা পুলিশ এসে আমার কাপড়েউঠিয়ে দেয় , পুরো মিডিয়া লাইভ  চলছিল। লাঠি দিয়ে আমাকে বিভিন্নভাবে মেরে  আমাকে অপমান করছিল।

 

উল্লেখ্য, যে দিল্লির শাহীনবাগ এলাকায় ভারতের বিতর্কিত আইনের বিরুদ্ধে নারীদের বিক্ষোভ গত মাস থেকেই চলছে, যেখানে এক সময় সশস্ত্র হিন্দু চরমপন্থী সন্ত্রাসীরা গুলি চালিয়েছিল এবং আতঙ্ক ছড়িয়েছিল।

দিল্লির শাহীনবাগ ভারতে বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে, যেখানে বিপুল সংখ্যক প্রতিবাদী উপস্থিত রয়েছে।

নাগরিকত্ব আইন এবং এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ

উল্লেখ্য, গত বছরের ১১ ই ডিসেম্বর ভারতীয় সংসদ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন পাস করে, যা ৩১ ডিসেম্বর, ২০১৪ এর আগে ৩ টি প্রতিবেশী দেশ থেকে ভারতে আগত হিন্দু, শিখ, বৌদ্ধ, জৈন, পার্সী এবং খ্রিস্টানদের ভারতীয় নাগরিকত্ব প্রদান করবে। বাদ পড়বে মুসলিমরা।

উল্লেখ্য যে ভারতের লোকসভা এবং রাজ্যসভা বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলটি পাস করেছে, যার পর থেকে সারা দেশে, বিশেষত আসামে সহিংস বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে।

এছাড়াও, বিতর্কিত নাগরিকত্ব আইন কার্যকর করার বিষয়ে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) -র তীব্র প্রতিবাদের পরে ৯ জানুয়ারি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আসাম সফর বাতিল করতে হয়েছিল।

সূত্র: ডন নিউজ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন