ভারতে মুসলিম গর্ভবতী মহিলাকে পেটে লাথি,সন্তান প্রসব।

0
624

ভারতীয় গণমাধ্যম “দি ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস” জানান যে, গত মঙ্গলবার কারাওয়াল নগরের মহলক্ষ্মী বিহারে একটি মুসলিম পরিবার আক্রমণের শিকার হয়েছেন।নিজ বাড়িতে অবস্থানকালে কিছু উগ্র মালাউন মুশরিক ঘরে প্রবেশ করেই শাবানা নামক এক মহিলাকে আক্রমণ করে। তিনি তাদের তাদের অনুরোধ করেন যেন তারা তাকে পেটে আঘাত না করে। মুশরিকরা তাকে লাঠি দিয়ে মারধর করেছে এবং কেউ কেউ পেটে লাথি মারে।মালাউন সন্ত্রাসীরা যাওয়ার সময় বাড়িটি ধ্বংস করে দিয়ে চলে যায়।

শাবানা জানান, প্রতিবেশী সানজিভ মঙ্গলবার হামলার পরে তাকে মুস্তাফাবাদের পুরাতন হাসপাতালে নিয়ে আসেনএবং তারপরে তার পরিবারের বাকি দুই শিশু – শাশুড়ী এবং অন্যান্য আত্মীয়-স্বজনদেরও তিনি নিয়ে আসেন।শাবানা বলেন।

শাবানা এখন মুস্তাফাবাদের পুরাতন আল-হিন্দ হাসপাতালে রয়েছেন। শাবানার চিকিৎসা করা চিকিৎসক বলেছিলেন যে এটি একটি জটিল ডেলিভারি ছিল কারণ তিনি তার চিকিৎসার ব্যবস্থাপত্র দেখাতে পারেনি।কারণ তাদের বাড়িতে সমস্ত কাগজপত্র পুড়ে গেছে।

শাবানার স্বামীকে জানানো হয়েছে যে তার একটি বাচ্চা ছেলে রয়েছে, তবে তিনি সেখানে যেতে পারছেন না।তার চাচা, মুজিব-উর-রেহমান বলেন “আমরা তাকে পরে আসার পরামর্শ দিয়েছি। ” কারণ সেখানকার পরিবেশ কিছুটা উত্তেজনাকর,মালাউনরা তখনও টহল দিচ্ছিল।রেহমানও সানজিভের সাহায্য নিয়ে পালাতে সক্ষম হয়েছিল।

শাবানা তার শাশুড়িকে জিজ্ঞাসা করলেন, তাদের পোড়া বাড়ি থেকে কিছু উদ্ধারযোগ্য কিনা। “আমি এখন আমার নবজাতক এবং আমার দুই ছেলের সাথে কোথায় যাব?” সব তো খতম কর দিয়া। কবি নেহি সোছা থা ইয়ে ইতনি দেশহাত কে মহল মেইন জনম লেগা।”

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন