মালি | আল-কায়েদার হামলায় জাতিসংঘের ৩৫ এরও অধিক সৈন্য হতাহত

2
699
মালি | আল-কায়েদার হামলায় জাতিসংঘের ৩৫ এরও অধিক সৈন্য হতাহত

মালিতে জাতিসংঘের অধিভুক্ত ক্রুসেডার ‘পিস ফোর্স’ এবং সোমালিয়ান সেনাদের উপর ২টি সফল হামলা চালিয়েছেন জিএনআইএম মুজাহিদিন। এতে কমপক্ষে ৩৫ ক্রুসেডার ও মুরতাদ সেনা হতাহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, গত ৯ ফেব্রুয়ারি সোমবার ভোর ৭:০০ টার দিকে, পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মধ্য মালির মোপ্তি রাজ্যের দোয়ন্তাজ অঞ্চলে কুফ্ফার জাতিসংঘের অধিভুক্ত মিনোসুমা জোট বাহিনীর ‘পিস ফোর্স’ নামক বিশেষ সেনাদের উপর শক্তিশালী বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমগুলো জানায় যে, আল-কায়েদা শাখা জামা’আত নুসরাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিনের (JNIM) জানবাজ মুজাহিদিন এই বরকতময় সফল অভিযানটি পরিচালনা করেছেন।

মুজাহিদদের এই আক্রমণটির লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয় মালিতে ক্রুসেডার জাতিসংঘ মিশন, মিনোসুমা (জাতিসংঘের আর্থিক বহুমাত্রিক স্থিতিশীল মিশন) এর অন্তর্গত একটি অস্থায়ী সামরিক বেস।

ক্রুসেডার মিনোসুমা জোটের মুখপাত্র ‘অলিভিয়ার সালগাদো’ গত ১০ ফেব্রুয়ারি সোশ্যাল মিডিয়ায় হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছিল যে, প্রাথমিক সিদ্ধান্ত অনুযায়ী এই হামলায় আমাদের প্রায় ২০ সেনা হতাহত হয়েছে।

স্থানীয় সূত্রগুলি উল্লেখ করেছে যে, মুজাহিদদের এই আক্রমণের শিকার হওয়া সৈন্যরা ছিল টোগো (দেশের নাম) সেনাবাহিনীর। যারা মালিতে ক্রুসেডার জোটের অধীনে মুজাহিদদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে আসছে।

আঞ্চলিক সূত্রের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই হামলায় ক্রুসেডারদের একটি সামরিক কাফেলা লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয়েছিল। শক্তিশালী বোমা দ্বারা প্রথমে একটি গাড়ি লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয়। তারপরে টোগো সৈন্যদের মর্টার এবং আগ্নেয়াস্ত্র লক্ষ্য করে হামলা চালান মুজাহিদগণ। এতে টোগো সৈন্যদের সকল আগ্নেয়াস্ত্র ও মর্টার ধ্বংস হয়ে যায়। যার ফলে কয়েক ডজন সৈন্য নিহত ও আহত হয়েছে। আহত সৈন্যদের বেশিরভাগের অবস্থাই গুরুতর ছিল বলেও দাবি করা হয়।

এর আগে একই সপ্তাহে রাজ্যটির বোনি শহরে মুরতাদ মালিয়ান সামরিক বাহিনীর একটি ঘাঁটিতে বড়ধরণের আক্রমন চালিয়েছে আল-কায়েদা মুজাহিদিন। দীর্ঘক্ষণ লড়ায়ের পর মুজাহিদগণ ঘাঁটিটি বিজয় করেনে। এসময় মুজাহিদদের হামলায় নিহত হয় কমপক্ষে ১৫ মুরতাদ সৈন্য, আহত হয়েছে আরো অনেক। মুজাহিদগণ গনিমত লাভ করেছেন ৩টি সামরিযান, ১টি ডুয়াল-ক্যালিবার ১৪.৫ নামক ভারী অস্ত্র, দুই প্রকার ১০টি মেশিনগান, ১৫টি ক্লাশিনকোভ এবং ১টি পিবিজি-নাইন নামক কামানসহ অরো অনেক অনেক অস্ত্র ও গোলা-বারুদ।

এটি লক্ষণীয় যে সম্প্রতি এই অঞ্চলে অভিযান বৃদ্ধি করেছে আল-কায়েদা মুজাহিদিন। তাছাড়া রাজ্যটির অধিকাংশ অঞ্চলের উপর নিয়ন্ত্রণ নিয়ে এখানে সক্রিয়ভাবে কাজ করছেন তাঁরা।

অভিযান শেষে মুজাহিদদের প্রাপ্ত কিছু গনিমত…

IMG-20210213-211957-887

মালি | আল-কায়েদার হামলায় জাতিসংঘের ৩৫ এরও অধিক সৈন্য হতাহত

IMG-20210213-212000-197

IMG-20210213-211954-471

 

2 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন