মাসিক রিপোর্ট | পাক-তালিবানের হামলায় ৭৯ মুরতাদ সৈন্য হতাহত

1
640
মাসিক রিপোর্ট | পাক-তালিবানের হামলায় ৭৯ মুরতাদ সৈন্য হতাহত

পাকিস্তানের বৃহত্তম জিহাদী গ্রুপ তেহরিক-ই-তালিবান পাকিস্তানের (টিটিপি) অফিসিয়াল চ্যানেল এবং এর অধিভুক্ত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও অ্যাকাউন্টগুলিতে গত মার্চ মাসে সামরিক বাহিনীর উপর পরিচালিত হামলার বিবরণ প্রকাশ করা হয়েছে।

অভিযানের বর্ণনাটি আধুনিক নকশায় তৈরি একটি “ইনফোগ্রাফিক” আকারে প্রকাশিত হয়েছে, যাতে আক্রমণগুলির প্রকৃতি অবস্থান এবং সামরিক প্রতিষ্ঠানের ক্ষয়ক্ষতির বিবরণ দেখানো হয়েছে।

বার্ণনা অনুযায়ী, মার্চ মাসে পাকিস্তানী মুরতাদ সামরিক বাহিনীগুলোর উপর মোট ২৯ টি হামলা চালিয়েছে টিটিপি, এরমধ্যে বাজোর এজেন্সিতেই সর্বাধিক সংখ্যক হামলা (১০) পরিচালনা করা হয়েছে, এমনিভাবে ডিআই খান, বান্নু, মাহমান্দ এজেন্সি এবং উত্তর ওয়াজিরিস্তানে ৩টি করে, অপরদিকে বেলুচিস্তানে ও লাকি মারওয়াতে ২টি করে হামলা চালানো হয়েছে। এছাড়াও রাওয়ালপিন্ডিতে ২টি এবং ইসলামাবাদে ১টি আক্রমণ চালানো হয়েছে।

বিশদ মতে, টিটিপি পাকিস্তানী মুরতাদ বাহিনীগুলোর বিরুদ্ধে টার্গেট, সম্মুখ লড়াই, স্নাইপার, ক্ষেপণাস্ত্র এবং বোমা বিস্ফোরণ সহ বিভিন্ন হামলা চালিয়েছে।

বর্ণনা অনুযায়ী, টিটিপির ২৯টি হামলায় সামরিক বাহিনীর ৪০ সদস্য নিহত এবং ৩৯ সড়স্য আহত হয়েছে, যার মধ্যে ৫৬ জনই ছল সেনা, ১৩ জন পুলিশ, ৫ জন এফসি কর্মী, ২ জন গোয়েন্দা কর্মী, এবং ১ জন কথিত শান্তি কমিটির স্বেচ্ছাসেবক।

হামলার ফলে সামরিক প্রতিষ্ঠানগুলিরও আর্থিক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। যারমধ্যে রয়েছে পুলিশ বাহিনীর ২টি গাড়ি এবং ৫টি সামরিক স্থাপনা ধ্বংসসহ বিভিন্ন সামরিক সরঞ্জাম পুড়িয়ে দেওয়া।

এটি লক্ষণীয় যে, ২০২১ সালের গত মাসেই টিটিপি অতীতের তুলনায় সবাচাইতে বেশি (২৯) হামলা চালিয়েছে। এর আগে দুই মাসে অর্থাৎ ফেব্রুয়ারিতে ১৬টি এবং জানুয়ারিতে ১৭টি আক্রমণ চালিয়েছিল টিটিপি। এটা স্পস্ট যে, তেহরিক-ই-তালিবান প্রতি মাসে হামলার সংখ্যা বৃদ্ধি করে চলছে।

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন