আবারো দিল্লির রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

0
1226

ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে দিল্লির এক রোহিঙ্গা ক্যাম্প সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়েছে। ভারতের রাজধানী দিল্লিতে অবস্থিত এ রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আগুন লাগার ফলে কয়েক শ’ মানুষ গৃহহীন হয়েছেন।

স্থানীয় সময় শনিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে এ অগ্নিকাণ্ডের সূত্রপাত হয়। পরে আগুন দ্রুত সমগ্র রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ছড়িয়ে পড়ে। দিল্লির দক্ষিণাঞ্চলে অবস্থিত মদনপুর খাদার এলাকায় অবস্থিত এ রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ৫৫টি জীর্ণ আশ্রয়কুটির ছাইয়ে পরিণত হয়। তবে আগুনে পুড়ে কেউ নিহত বা আহত হওয়ার খবর পাওয়া যায়নি।

২০১৮ সালে আগুনে পুড়ে ছাই হওয়ার পর দ্বিতীয়বারের মতো এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটল।

আগুন পুরো রোহিঙ্গা ক্যাম্পকে বিধ্বস্ত করেছে। ৫৫ রোহিঙ্গা পরিবারের ঘর এ অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে যায়। এ অগ্নিকাণ্ডের সময় আকাশ কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে যায়। এ সময় শরণার্থীরা নিরাপত্তার জন্য দ্রুত বের হয়ে যান ও সাহায্যের জন্য চিৎকার করেন।

ভারতে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের রাখার জন্য আলাদা কোনো জায়গা তৈরি করা হয়নি। জম্মু, দিল্লি এবং পশ্চিমবঙ্গের কিছু অঞ্চলে রোহিঙ্গারা আশ্রয় নিয়েছিলেন। যদিও এসব মুসলিম শরণার্থীদের আশ্রয় দেয়ার বিষয়ে শুরু থেকেই নেতিবাচক ভারত সরকার। এমনকি বসবাসের উপযুক্ত পরিকাঠামো তৈরি করা হয়নি।

দিল্লির রোহিঙ্গা শিবিরের অবস্থাও অস্বাস্থ্যকর। উপায় না থাকায় সেখানেই বসবাস করতে বাধ্য হচ্ছেন শরণার্থীরা। সম্প্রতি জম্মু থেকে বেশ কিছু রোহিঙ্গা সেখানে গেছেন। পশ্চিমবঙ্গের ক্যাম্প থেকেও পাঠানো হয়েছে কিছু শরণার্থীকে। এর মধ্যেই আশ্রয় শিবিরটিতে আগুন লাগার ঘটনা ঘটে।

মদনপুর খাদার শরণার্থী শিবিরে এর আগেও আগুন লেগেছে। তখন অভিযোগ উঠেছিল, রাতের অন্ধকারে আগুন লাগিয়ে দেয়া হয়েছে।

নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক রোহিঙ্গা শিবিরের এক বাসিন্দা ডয়েচে ভেলেকে জানান, জায়গা ছেড়ে দেয়ার জন্য শনিবার সকালে একদল লোক তাদের ওখানে গিয়েছিল। সেই রাতেই আগুন লাগে। বস্তুত, ক্যাম্পের জায়গা ফাঁকা করার চেষ্টা চলছে অনেক দিন ধরেই।

এ অবস্থায় মানবাধিকার সংগঠনগুলোর প্রশ্ন, শরণার্থী শিবির তুলে দিলে আশ্রিত রোহিঙ্গারা কোথায় যাবেন? তাদের কি ডিটেনশন ক্যাম্পে নেয়া হবে?

সম্প্রতি জম্মুতে বেশ কিছু রোহিঙ্গাকে ডিটেনশন ক্যাম্পে পাঠানো হয়েছে।

 

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধচারদিনেও খোঁজ মেলেনি ‘আলোচিত তরুণ বক্তা’ মুহাম্মদ আদনানের
পরবর্তী নিবন্ধকাবুল বাহিনী থেকে আরো চারটি জেলা বিজয় করে নিয়েছেন তালিবান মুজাহিদিন