হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দ্বিতীয় দফায় মুমূর্ষু সাংবাদিককে কোপালো ছাত্রলীগ

0
1118
হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দ্বিতীয় দফায় মুমূর্ষু সাংবাদিককে কোপালো ছাত্রলীগ

তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চুয়াডাঙ্গা জেলায় সাংবাদিক সোহেল রানা ডালিমের উপর চড়াও হয়েছে ত্বাগুত প্রশাসনের গোন্ডাবাহিনী ছাত্রলীগ।

হামলাকালে উগ্র ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের ক্ষুরের আঘাতে মারাত্মকভাবে আহত হন সাংবাদিক সোহেল। মৃতপ্রায় সোহেলকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেওয়া হলে চিকিৎসারত সাংবাদিক সোহেলকে সেখানে গিয়ে আরেক দফা এলোপাতাড়ি কোপায় সন্ত্রাসী ছাত্রলীগ।

জানা যায়, গত ১৬ আগষ্ট সোমবার রাতে শহরের ইমার্জেন্সি রোডে প্রথম দফায় ও পরে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে দ্বিতীয় দফায় সাংবাদিকের উপর ন্যাক্কারজনক হামলা করে কুখ্যাত ছাত্রলীগ।

সাংবাদিক সোহেল রানা ঢাকা থেকে প্রকাশিত দৈনিক আমাদের নতুন সময় পত্রিকার চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রতিনিধি এবং স্থানীয় দৈনিক সময়ের সমীকরণ পত্রিকার নিজস্ব প্রতিবেদক হিসাবে দায়িত্বপালন করছেন। তিনি চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার সিঅ্যান্ডবিপাড়ার আবদুল করিমের ছেলে।

জানা যায়, সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে পত্রিকা অফিসের উদ্দেশে মোটরসাইকেলে রওনা দেন সোহেল রানা ডালিম। তিনি শহরের ইমার্জেন্সি রোডস্থ আবদুল্লাহ সিটি কমপ্লেক্সের সামনে পৌঁছলে তার মোটরসাইকেলের সঙ্গে আকস্মিকভাবে চুয়াডাঙ্গা জেলা ছাত্রলীগের সাবেক স্কুল ও ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক রাজু আহমেদের মোটরসাইকেলের ধাক্কা লাগে।

এতে ছাত্রলীগ নেতা রাজু ও তার কর্মীরা ক্ষেপে গিয়ে সাংবাদিক সোহেলের উপর হামলা শুরু করে। হামলার এক পর্যায়ে ক্ষুর দিয়ে তারা রক্তাক্ত করে সাংবাদিক সোহেলকে। মুমূর্ষু সোহেলকে রাত ৯টার দিকে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নেয়া হলে সেখানেও দ্বিতীয় দফায় আবারো বর্বরোচিত হামলা চালায় ছাত্রলীগ। এ সময় তাকে পুনরায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করে তারা।

হাসপাতালের জরুরি বিভাগের ডা. শাকিল আর সালান বলেন, সাংবাদিক সোহেলের পিঠ, হাত, পেট ও বুকসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছাত্রলীগের ধারালো ছুরির আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সাংবাদিকের শরীরে দুই শতাধিক সেলাই দেওয়া হয়েছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সাংবাদিক সোহেলকে সার্জারি ওয়ার্ডে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন