ব্রেকিং নিউজ || আশ-শাবাবকে কাতারে রাজনৈতিক কার্যালয় খোলার প্রস্তাব

ত্বহা আলী আদনান

6
1714
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

সম্প্রতি গুঞ্জন উঠেছে যে, পূর্ব আফ্রিকার প্রভাবশালী ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী আশ-শাবাব ও সোমালি গোয়েন্দা সংস্থা (NISA) এর প্রতিনিধিদের মাঝে একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে তারা একটি রাজনৈতিক কার্যালয় খোলার বিষয়ে আলোচনা করেছে।

আঞ্চলিক সংবাদ মাধ্যম হালগান মিডিয়ার খবর অনুযায়ী, গত সপ্তাহে সোমালিয়ার বসরা অঞ্চলে কাতারের কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। যেখানে কাতারে একটি রাজনৈতিক কার্যালয় খোলার বিষয়ে পরামর্শ হয়।

সংবাদ মাধ্যমটি দাবি করেছে যে, গত সপ্তাহে কাতারের মধ্যস্থতায় মোগাদিশু প্রশাসনের গোয়েন্দা (NISA) কর্মকর্তা এবং আল-কায়েদার পূর্ব আফ্রিকান শাখা আশ-শাবাবের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের মধ্যে এই আলোচনা হয়েছে। যেখানে টানা তিনদিন ধরে এই আলোচনা চলে। সেই সাথে পরবর্তী সময়েও এই আলোচনা চলমান থাকবে বলে উভয় দল একমত হয়। এসময় কাতার আশ-শাবাবকে দোহায় একটি রাজনৈতিক অফিস স্থাপন করার পরামর্শ দেয়। এতে সম্মতি জানিয়েছে আশ-শাবাব।

সংবাদ মাধ্যমটি আরও দাবি করেছে, বৈঠক শেষে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় যে, উভয় দলের প্রতিনিধিরা কাছাকাছি সময়ে ৪ দিনের জন্য আরও একটি বৈঠকে একত্রিত হবেন। যাতে রাজনৈতিক কার্যালয় স্থাপন সহ দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হবে।

তবে কাতার, মোগাদিশু প্রশাসন বা আশ-শাবাব কোনো পক্ষ থেকেই এবিষয়ে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি পাওয়া যায়নি। এখন পর্যন্ত সব পক্ষই মন্তব্য করা থেকে বিরত থেকেছে।

উল্লেখ্য যে, আলোচনার বিষয়টি এমন সময় প্রকাশ্যে এসেছে, যখন সোমালিয়ার দক্ষিণ ও মধ্যাঞ্চলে মোগাদিশু প্রশাসন ও আশ-শাবাবের মধ্যে তীব্র সংঘর্ষ চলছে। যেখানে আশ-শাবাব প্রতিদিনই মোগাদিশুর গাদ্দার বাহিনীকে হটিয়ে কোন না কোন ঘাঁটি, এলাকা বা শহরের নিয়ন্ত্রণ নিচ্ছেন। ধারণা করা হচ্ছে যে, চলতি মাসের শুরু থেকে গত ১২ অক্টোবর পর্যন্ত দেশটিতে আশ-শাবাবের হামলায় নিহত সোমালি গাদ্দার সেনা সংখ্যা ১৫ শত ছাড়িয়েছে। আহত হয়েছে আরও অসংখ্য গাদ্দার সৈন্য।

সব মিলিয়ে আশ-শাবাব এখন কেন্দ্রীয় সোমালিয়ার ৯০ শতাংশেরও বেশি এলাকা নিয়ন্ত্রণ করছে। পাশাপাশি কেনিয়া ও ইথিওপিয়ার বিস্তীর্ণ এলাকার নিয়ন্ত্রণও গ্রহণ করেছে হারাকাতুশ-শাবাব।

6 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধবোরকা পরলে লাখ টাকা জরিমানার বিধান করছে ইসলাম বিদ্বেষী সুইজারল্যান্ড
পরবর্তী নিবন্ধবাড়িতে ঢুকে প্রবীণ মুসলিমকে পিটিয়ে খুন : এক মাসেও গ্রেফতার হয়নি কেউ