ফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট- ১৮ জানুয়ারি, ২০২৪

- সাইফুল ইসলাম

0
141
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

সাত দিন ধরে গাজায় যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ রয়েছে।

দখলীকৃত পশ্চিম তীরের তুলকারেম অন্তত ৪০ ঘণ্টা ধরে অবরুদ্ধ করে রেখেছে দখলদার ইসরায়েল। প্রতিরোধ যোদ্ধাদের মূলোৎপাটনের উদ্দেশ্যে এমন অবরোধ করা হয়েছে বলে জানায় দখলদার বাহিনী।

খান ইউনিসের একটি আবাসিক ভবনে দখলদার বাহিনীর বিমান হামলায় ৫ জন ফিলিস্তিনি নিহত হয়েছে।

বৃহস্পতিবারে দখলদার ইসরায়েলি বাহিনী মোট ১৫টি গণহত্যা চালিয়ে ১৭২ জন ফিলিস্তিনিতে হত্যা করেছে বলে জানায় ফিলিস্তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

লোহিত সাগরে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে লড়াই করছে হুথিরা। মার্কিন মালিকানাধীন একটি জাহাজে হামলা চালিয়েছে তারা।

বাইডেনের সাথে কথা বলার সময় ফিলিস্তিন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার বিষয়টিকে প্রত্যাখ্যান করেছে সন্ত্রাসী নেতানিয়াহু।

চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় বলছে, লোহিত সাগরে যুদ্ধ ছড়িয়ে পড়ার বিষয়টি গভীরভাবে পর্যবেক্ষণ করছে চীন।

দখলদার ইসরায়েলের হামলায় গাজায় এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন ২৪,৭৬২ জন ফিলিস্তিনি।

আল-কাসসাম ব্রিগেডের মুজাহিদগণ খান ইউনিসের একটি ভবনে অবস্থান নেওয়া দখলদার বাহিনীর উপর দুর্গবিধ্বংসী গোলা দিয়ে হামলা করেছেন। এতে ৫ জায়োনিস্ট সৈন্য হতাহত হয়েছে।

খান ইউনিসের বনী সুহেইলাতে ৩০ সদস্যের পদাতিক জায়োনিস্ট বাহিনীকে প্রলুব্ধ করে একটি ভবনে নিয়ে যান মুজাহিদগণ। সেখানে তাদের উপর বিস্ফোরক ডিভাইস বিস্ফোরিত করেন।

আল-কাসসাম ব্রিগেড বিভিন্ন জায়গায় দখলদার বাহিনীর ৪টি মারকাভা ট্যাংক, ২টি এপিসি এবং ৫টি সামরিক ডি৯ বুলডোজার ধ্বংস করেছেন।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধগাজায় দখলদার ইসরায়েলী আগ্রাসনের শততম দিন: হতাহত ও নিখোঁজ ১ লাখ
পরবর্তী নিবন্ধগাজায় দৈনিক মৃত্যুহার ২১ শতকের যেকোনো সংঘাতকে ছাড়িয়ে গেছে