বিক্ষোভের মাঝেই ভারতীয় রাষ্ট্রপতির স্বাক্ষরের মাধ্যমে আইনে পরিণত হল মুসলিম বিরোধী নাগরিকত্ব বিল

0
179

কোথাও জ্বলছে টায়ার, কোথাও আবার ভারতীয় মালাউন সন্ত্রাসী  পুলিশের গুলিতে প্রাণ কাড়ল পাঁচ জনের, জ্বালিয়ে দেওয়া হল দুই সন্ত্রাসী দল বিজেপি সাংসদদের বাড়ি, প্রতিবাদীদের সঙ্গে সন্ত্রাসীবাহিনীর লড়াইয়ের চিত্র এখন আসামের দিনপঞ্জি। নাগরিকপঞ্জি থেকে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল, প্রতিবাদের আগুন জ্বলেছে শহরের প্রতিটি কোনায়। আসামের এই বিক্ষুদ্ধ পরিস্থিতির মাঝেই বৃহস্পতিবার কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রক একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়ে দেয় যে এই নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলে সায় দিয়েছে মালাউন সন্ত্রাসী রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ। ২০১৪ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত অ-মুসলিমদের নাগরিকত্ব দেওয়ার যে দাবি পদ্মশিবির বিলে পরিণত করেছে, এবার তাতেই রাষ্ট্রীয় সম্মতি মিলেছে,এমনটাই জানিয়েছে আইনমন্ত্রক।

কিন্তু আসাম শান্ত হয়নি। বরং ক্রমশ উত্তপ্ত হয়েছে পরিস্থিতি। নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদের মাঝেই রক্ত ঝরল গুয়াহাটিতে। পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে প্রাণ হারালেন দুজন। সংঘর্ষের মাঝেই আহত হলেন প্রায় ২১ জন। সকলকেই ভর্তি করা হয়েছে গুয়াহাটি মেডিকেল কলেজে।

বিক্ষোভকারীরা সার্কেল অফিস, রেলস্টেশনেও ভাঙচুর চালিয়েছে।  বন্ধ করা হয়েছে আসাম-ত্রিপুরা রেলপরিষেবা। মোতায়েন করা হয়েছে ১২ কোম্পানি বিশেষ সন্ত্রাসী বাহিনী।

তবে আসামের পরিস্থিতি এতোটাই উতপ্ত, তা ছোঁয়া তো দূরের কথা, কাছে গেলেও প্রতিবাদের আঁচ টের পাওয়া যাচ্ছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে ২ হাজার সশস্ত্র সন্ত্রাসী পুলিশ বাহিনীকে মোতায়েন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি ১০টি জেলায় বন্ধ করা হল ইন্টারনেট পরিষেবা, অনির্দিষ্টকালের জন্য কার্ফু জারি করা হল গুয়াহাটিতে।

 

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন