ফ্রান্সের চাপের মুখে টুইটার থেকে ‘হিজাবি ক্যাম্পেইন’ এর পোস্টগুলো মুছে দিলো ইউরোপিয়ান কাউন্সিল।

0
673
ফ্রান্সের চাপের মুখে টুইটার থেকে ‘হিজাবি ক্যাম্পেইন’ এর পোস্টগুলো মুছে দিলো ইউরোপিয়ান কাউন্সিল।

ফ্রান্সের চাপের মুখে পড়ে টুইটার থেকে ‘হিজাবি ক্যাম্পেইন’ এর পোস্টার উঠিয়ে দিয়েছে ইউরোপিয়ান কাউন্সিল। সেই পোস্টার মুসলিম মহিলাদের হিজাবকে প্রমোট করছিলো।

গত সপ্তাহে ইউরোপিয়ান কাউন্সিল মুসলিমদের প্রতি বৈষম্যমূলক আচরণের বিরুদ্ধে একটি ছবি পোস্ট করেছিলো। ছবিটি হিজাবি মুসলিম মহিলাদের প্রতি সম্মান দেখিয়ে এবং হিজাবের প্ররোচনার উদ্দেশ্যে পোস্ট করা হয়।

কিন্তু ফ্রান্সের সেই বিষয়টি পছন্দ হয় নি। তাদের প্রতিবাদের মুখে পড়ে শেষ পর্যন্ত সেই পোস্ট সরাতে বাধ্য হয় ইউরিপিয়ান কাউন্সিল।

সেই ক্যাম্পেইনের ব্যপারে ফ্রান্সের কিছু রাজনীতিবিদদের উক্তি হলো-

“পোশাকে না বরং মহিলারা তাদের পোশাক খুললেই পায় স্বাধীনতা”– ম্যারি লা পিন (ফার রাইট রিসেম্বল্‌মেন্ট ন্যাশনাল পার্টি)

এরিক জিমুর, যে কিনা একজন প্রেসিডেন্সিয়াল ক্যান্ডিডেট এবং ইসলাম ও মুসলিমদের কটাক্ষ করাতে বেশ কুখ্যাতি অর্জন করেছে, সে বলেছে যে- ” ইসলাম হচ্ছে স্বাধীনতার শত্রু। আর এই ক্যাম্পেইন হচ্ছে সত্যের শত্রু।”

উল্লেখ্য ফ্রান্সে সমকামিতা, ইসলামকে কটাক্ষ করা, মুহাম্মাদ (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এর উদ্দেশ্যে কার্টুন আঁকা এসবকে বাক্‌ স্বাধীনতা হিসেবে বর্ণনা করা হয়; তবে শুধু ইসলাম পালনের ক্ষেত্রে মুসলিমদের উপর শত বাধ্য-বাধকতা আরোপ করা হয়।

এর আগে ফ্রান্সে মহিলাদের বোরখা পড়া নিষিদ্ধ করার পাশাপাশি নানান সময় মুসলিমদের প্রতি নানাণ বৈষম্যমূলক আইন বা নিয়ম চালু করেছে দেশটির সরকার।

তথ্যসূত্র:
——
১। Doam (Documenting Oppressions Agains Muslims)
https://tinyurl.com/44zrw7ua

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন