ভারতীয় মুসলিমদের উপর হিন্দুত্ববাদীদের অত্যাচার তীব্র আকার ধারণ করেছে!

উসামা মাহমুদ

2
840

ভারতে মুসলিমদের বিরুদ্ধে হিন্দুত্ববাদীদের লুকানো চরম বিদ্বেষ চূড়ান্ত রূপ নিতে শুরু করেছে। মুসলিমদের জান মালের পাপাশি নারীদের ইজ্জত নিয়েও ছিনিমিনি শুরু করেছে হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীরা।
২৭ শে নভেম্বর সোস্যাল মিডিয়া টুইটারে পোস্ট করা একটি ভিডিওতে দেখা যায় হিজাব পরা এক মুসলিম নারীকে একদল কুলাঙ্গার উগ্র হিন্দু হেনেস্থা করছে।
ভিডিওতে শুরুতেই দেখা যায় কমবখত হিন্দুরা জয় শ্রীরামসহ বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে মুসলিম নারীর হিজাব ধরে টানাটানি শুরু করে। হইহুল্লোর করে মুসলিম নারীর হিজাব ধরে বারবার হেচকা টান দিতে থাকে।
পরে অন্যানরা মুসলিম নারীর শরীরে আঠা/ ময়দা-রং এবং তেল জাতীয় তরল পদার্থ টেলে দিচ্ছে। অসহায় মুসলিম নারী বারবার নিষেধ করার পরও উম্মাদ হিন্দুরা নারকীয় উল্লাসে মেতে উঠে।
এমনিভাবে, আরেকটি ভিডিওতে দেখা গেছে হিন্দুরা জয় শ্রীরামসহ বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে এক মুসলিম যুবককে বেধম পিটাচ্ছে।
এদিকে,ভারতে ঝাড়খণ্ডের সিমডেগায় আদিল হুসেন নামে এক মুসলিম ব্যক্তির একদল উগ্র হিন্দু সন্ত্রাসীরা হামলা চালায়। গতকাল সন্ধ্যায় নামাজ পড়ার জন্য মসজিদে যাওয়ার পথে এ ঘটনা ঘটে। প্রথমে তাকে লাঞ্ছিত করে।পরে নির্মমভাবে মারধর করে। ফলে মাথাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে গুরুতর জখম হয়ে যায়। বর্তমানে তিনি রাঁচির একটি হাসপাতালে শয্যাশায়ী আছেন।
তার ভাই সাহিল হুসেন, ক্ল্যারিয়ন ইন্ডিয়াকে জানিয়েছে, যে আদিলকে প্রথমে বেঁধে রাখা হয়েছিল এবং তারপর নির্মমভাবে মারধর করা হয়। যতক্ষণ না তারা ভেবেছিল যে সে মারা গেছে।
হিন্দু উগ্র জনতার পাশাপাশি মুসলিমদের উপর নির্যাতন চালাচ্ছে পুলিশ প্রশাসন। বেঙ্গালরুর কর্নাটকে সালমান (২২) নামের এক যুবককে চুরির দায়ে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর পুলিশি হেফাযতে চালানো হয় তার ওপর অমানবিক নির্যাতন।

সালমানের ভাষায়, “আমাকে ভারথুর পুলিশ স্টেশনে নিয়ে গিয়ে নির্মম ভাবে নির্যাতন করে তিনজন পুলিশ। বাধ্য হয়ে আমি তাদের কাছে তিনটি গাড়ীর ব্যাটারী চুরির স্বীকারোক্তি দেই…তারা আবার আমাকে পুলিশ স্টেশনে নিয়ে আসে এবং আমি যেই অপরাধ করি নি সেই বিষয়ে স্বীকারোক্তি দিতে বলে।”

সালমান আরও জানায়, “আমাকে টানা তিনদিন নির্যাতন করা হয় এবং তারা আমার শরীরের যে কোন একটি অংশ টার্গেট করে সেখানে অনবরত মারতে থাকে এবং লাথি দিতে থাকে”।
সাধারণত চুরির দায়ে জেলে এমন নির্যাতন খুবই কম হয়। কিন্তু সালমান মুসলিম হওয়ার কারনেই তাকে এতো বেশি নির্যাতন করা হলো। নির্যাতনের ফলে তার হাতটি কেটে ফেলতে হয়। গরীব ঘরের এই মুসলিম যুবকটির চিকিৎসার খরচের জন্য তার পরিবারকে খরচ করতে হয়েছে সাড়ে তিন লাখ টাকা।
এদিকে, ভারতের গুরুগ্রামে মুসলিদের জুমার নামাজে জয় শ্রীরামসহ বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে মুসলিমদের উপর আক্রমণ করছে হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীরা।

হিন্দুত্ববাদীদের অখণ্ড ভারত নির্মাণে মুসলিমদের উপর জুলুম-নির্যাতনের স্টীম রোলার চালাচ্ছে। যা দিনে দিনে জ্যামিতিকহারে বেড়েই চলছে।
তবু উগ্র হিন্দুত্ববাদী সংগঠন রাষ্ট্রীয় স্বয়ং সেবক সংঘ (আরএসএস) সন্ত্রাসীদের প্রধান মোহন ভগবত মুসলিম বিদ্বেষের আগুনে ঘি ঢেলে দিয়ে বলেছে, ভারতে হিন্দুদের সংখ্যা ও শক্তি দুটোই কমছে। এতেই বুঝা যায় তাদের আসল লক্ষ্য মুসলিম নিধন করে অখণ্ড ভারত নির্মাণের আগে তাদের কাংখিত শক্তি ও সংখ্যা পূরণ হবে না। এখন মুসলিমদেরও ভেবে দেখা উচিৎ তারা কি শুধু হিন্দুদের নিধনযজ্ঞের বলি হবে নাকি হিন্দুত্ববাদী অপশক্তির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে?
তথ্যসূত্র:
১/ মুসলিম নারীকে একদল কুলাঙ্গার উগ্র হিন্দু হেনেস্থা করছে।
https://tinyurl.com/45b48w7e
2/এভিডিওটিতে এক মুসলিম তরুণকে মারধর করা হচ্ছে
https://tinyurl.com/375ckwpt
৩/আহত মুসলিমের ভিডিও লিঙ্ক:
https://tinyurl.com/5n8evrxy
৪/.Muslim Youth, on Way to Mosque, Beaten Up in Jharkhand Village; Case Registered
https://tinyurl.com/3bpvzkn8
৫/ভারতে হিন্দুদের সংখ্যা ও শক্তি কমছে: মোহন ভগবত
https://tinyurl.com/y8e8t5wx
৬/Bengaluru: Muslim man’s hand amputated after torture in police custody –
https://tinyurl.com/2p8he4am
৭/Gurgaon Namaz Row Continues, Muslims Offer Prayers Amid ‘Jai Shri Ram’ Chants
https://tinyurl.com/2p8wsask
https://tinyurl.com/2a6bp3vt

2 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন