উইঘুরদের পক্ষ নেওয়ায় এক অমুসলিম এক্টিভিস্টেকে সাত বছরের কারাদণ্ড

ওবায়দুল ইসলাম

0
641
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

ড্রিউ পাভলৌ, একজন সাধারণ এবং নিরীহ মানবাধিকার কর্মী। বছরের পর বছর ধরে চীনের কমিউনিস্ট পার্টির উইঘুরদের ওপর করে আসা মানবাধিকার লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে সদা সোচ্চার ছিলেন তিনি। তবে এই সোচ্চার থাকাটাই এখন কাল হয়ে দাঁড়ালো তার জন্য।

সম্প্রতি বোমা হামলা করার হুমকি দিয়ে একটি ইমেইল করার মিথ্যা অভিযোগে তাকে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে ব্রিটিশ আদালত। চীনা দূতাবাসের চাপেই মূলত এমনটি করেছে তারা। অথচ এই ব্রিটিশ ও পশ্চিমারাই আবার মানবতার মিথ্যা বুলি আওড়ায়। মানবতা ও নারী অধিকার রক্ষা করার নাম করে তারা আফগান-সোমালিয়ায় বমা মেরে শত-সহস্র মুসলিম নারী-শিশু-বৃদ্ধকে হত্যা করে, গ্রামের পর গ্রাম উজার করে দেয়; পূর্ব তুর্কিস্তানে উইঘুর মুসলিমদের উপর বর্বর চীনা হানদের পাশবিক জুলুমকে বিনা বাক্য ব্যয়ে মেনে নেয়। মুসলিমরা তাহলে কি তাদের কথিত মানবাধিকারের সংজ্ঞার বাইরের কোন সম্প্রদায়?

যাইহোক, টুইটারে একটি বার্তায় পাভলৌ লিখেছেন-
“আমি একজন শান্তিপূর্ণ মানবাধিকার কর্মী, যার বিরুদ্ধে সাত বছরের কারাদণ্ডের অভিযোগ রয়েছে। কারণ চীনা দূতাবাস ব্রিটিশ পুলিশকে রিপোর্ট করেছে যে, আমি একজন সন্ত্রাসী। আমাকে বোমা হামলার হুমকি দিয়ে একটি ইমেইল করার মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে ফাঁসানো হয়েছে। এমন কাজ যদি তারা আমার সাথে করতে পারে, তবে যে কারও সাথে তারা এটি করতে পারে।”

মুসলিম বিশেষজ্ঞগণ এ ব্যপারে বলছেন, পৃথিবীর সকল মানবিক বোধসম্পন্ন মানুষের এখন উচিত সারা বিশ্বে মুসলিমদের ওপর চলমান অত্যাচার-এর বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়া। আর মুসলিমদের কর্তব্য হল দ্বিমুখী পশ্চিমাদের প্রকৃত চিত্র বিশ্ববাসীর সামনে এনে মানবতার এই আসল শত্রুদের মুখোশ উন্মোচন করা, এবং তাদের বিরুদ্ধে দুর্বার প্রতিরোধ আন্দোলন গড়ে তুলে নিজেদের সেই সাথে বিশ্ব-মানবতার প্রকৃত মুক্তির ব্যবস্থা করা।


তথ্যসূত্র :
———
1. I’m a peaceful human rights activist facing charges…
https://tinyurl.com/mps4zrrr

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধঘড়ি চুরির মিথ্যে অভিযোগে হিন্দু শিক্ষকদের পিটুনিতে মুসলিম ছাত্র খুন
পরবর্তী নিবন্ধমালি | রাজধানীর সামরিক কেন্দ্রস্থলে আল-কায়েদার জোড়া ইস্তেশহাদী হামলা