সেনা ঘাঁটিতে ‘জেএনআইএম’এর শহিদী অভিযান, ১২৫ সেনা হতাহত

0
1025
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

মালির টিম্বুকটো রাজ্যে নতুন করে অবরোধ আরোপের পাশাপাশি রাজ্যটিতে সামরিক অভিযান বাড়িয়েছে প্রতিরোধ বাহিনী ‘জেএনআইএম’। সম্প্রতি এই রাজ্যের একটি সেনা ঘাঁটিতে প্রতিরোধ যোদ্ধাদের এক অভিযানে অন্তত ৭৩ সেনা নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সূত্রমতে, আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী জামা’আত নুসরাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন (জেএনআইএম) গত ২৪ নভেম্বর শুক্রবার, মালির টিম্বুকটো রাজ্যে একটি বৃহৎ আকারের সামরিক অভিযান পরিচালনা করছে। অভিযানটি রাজ্যটির নিয়াফুঙ্কি শহরে অবস্থিত ইসলাম বিরোধী মালির “ফামা” সামরিক বাহিনীর একটি ঘাঁটি লক্ষ্য করে চালানো হয়েছে। উক্ত অভিযানে শত্রু বাহিনীর অন্তত ৭৩ সেনা নিহত এবং আরও ৫২ সেনা আহত হয়।

ঘাঁটি ছেড়ে পালাচ্ছে মালির জান্তা সামরিক বাহিনী

আয-যাল্লাকা মিডিয়া সূত্র জানায়, অভিযানটি ‘জেএনআইএম’ প্রতিরোধ যোদ্ধা ভাই আবু দাউদ আল-আনসারী কর্তৃক একটি শহিদী হামলার মাধ্যমে দুপুর ১১টায় শুরু হয়। এরপর অন্যান্য ইনগিমাসী প্রতিরোধ যোদ্ধারা ঘাঁটি লক্ষ্য করে একযোগে তীব্র আক্রমণ শুরু করেন। জেএনআইএম যোদ্ধাদের আক্রমণের তীব্রতার ফলে কোনো প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারে নি মালির সামরিক বাহিনী, মালিয়ান সেনারা তাই দুপুর ১২:৩০ এর মধ্যেই দিকভ্রান্ত হয়ে সামরিক ঘাঁটি ছেড়ে পালাতে বাধ্য হয়।

সূত্রমতে, মুজাহিদদের এই অভিযানে কয়েক ডজন শত্রু সেনা হতাহতের পাশাপাশি, মুজাহিদগণ ৫টি গাড়ি এবং অসংখ্য অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জাম জব্দ করেন এবং ২ সেনাকে বন্দী করেন।

জব্দকৃত যান ও সামরিক সরঞ্জাম

 

মালির জান্তা সামরিক বাহিনীর এমন শোচনীয় পরাজয়ের পর, জেএনআইএম যোদ্ধারা নিয়াফুঙ্কি সামরিক ঘাঁটি ও এর আশপাশের এলাকার উপর নিজেদের নিয়ন্ত্রণ মজবুত করেছেন। গত ১১ ডিসেম্বর রাজ্যটিতে আবারো পূর্ণ অবরোধ আরোপ করেছে প্রতিরোধ বাহিনী জেএনআইএম। এর আগে গত আগস্টে রাজ্যটিতে একটি শ্বাসরুদ্ধকর অবরোধ আরোপ কররছিল ‘জেএনআইএম’। পরে গোত্র প্রধানদের মধ্যস্থতায় অবরোধ কিছুটা হালকা করে রাজ্যটির ‘জেএনআইএম’ গভর্নর। সম্প্রতি রাজ্যটিতে ওয়াগনার ও মালির জান্তা বাহিনীর মানবতা বিরোধী অপরাধ বৃদ্ধি পাওয়ায় নতুন করে শহরটিতে অবরোধ জোরদার করা হয়।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট – ১৩ ডিসেম্বর, ২০২৩
পরবর্তী নিবন্ধআল-ফিরদাউস নিউজ বুলেটিন || ডিসেম্বর ২য় সপ্তাহ, ২০২৩ঈসায়ী