বিচার সালিসে শিক্ষিকা ও তার বাবাকে জুতাপেটা করল মেম্বার!

0
433
বিচার সালিসে শিক্ষিকা ও তার বাবাকে জুতাপেটা করল মেম্বার!

মুন্সীগঞ্জের সিরাজদিখান উপজেলায় বিচার সালিসে স্থানীয় লোকজনের উপস্থিতিতে এক শিক্ষিকা ও তার বাবাকে জুতা ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে আহত করেছেন ইছাপুরা ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মো. রফিকুল ইসলাম। ভুক্তভোগী স্থানীয় একটি মাহিলা মাদরাসার আরবি বিভাগের শিক্ষিকা। শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় দিকে উপজেলার শিয়ালদি গ্রামের আব্দুল জব্বারের বাড়িতে বিচার সালিসে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় শিক্ষিকা শনিবার রাতে বাদি হয়ে সিরাজদিখান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

কালের কন্ঠের বরাতে জানা গেছে, শিয়ালদী গ্রামের মৃত আরোজ আলী দেওয়ানের ছেলে জাবেদ দেওয়ানের সঙ্গে পুকরের জায়গার মালিকানা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে ভুক্তভোগী শিক্ষিকার বাবা মো. আজিজুল হক (৬৫) এর সাথে বিরোধ চলছিল। শিক্ষিকার বাবা মো. আজিজুল হক তার নিজের রের্কডিয় পুকুরে মাটি কাটলে ওই পুকুরে ক্রয় সূত্রে মালিক দাবি করে জাবেদ দেওয়ান পুকুর থেকে মাটি কাটতে চাইলে এই নিয়ে শনিবার রাতে বিচার সালিস ডাকা হয়। বিচার সালিসে ভুক্তভোগী শিক্ষিকা ও তার বাবাকে সবার সামনে অন্যায়ভাবে ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম মারধর করেন বলে শিক্ষিকা অভিযোগ করেন।

ভুক্তভোগী শিক্ষিকা বলেন, ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম বিচারের সময় আমার বৃদ্ধ বাবাকে লাঠি ও জুতা দিয়ে মারধর করে এতে বাধা দিয়ে আমি এগিয়ে গেলে আমাকেও সবার সামনে জুতা দিয়ে মারধর করেন।

এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী মো. আব্দুল জাব্বার বলেন, আজিজুল হককে মেম্বার রফিকুল ইসলাম মারধর করতে থাকলে মেয়ে শিক্ষিকা শারমিন আক্তার এগিয়ে গেলে তাকেও জুতাপেটা করে ইউপি সদস্য।

 

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন