কোরবানির পশুর হাট বন্ধের নির্দেশ রেল কর্তৃপক্ষের

0
436
কোরবানির পশুর হাট বন্ধের নির্দেশ রেল কর্তৃপক্ষের

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের একটি কোরবানির পশুর হাট বন্ধ করার নির্দেশ দিয়েছে রেল কর্তৃপক্ষ। রেলের নিজস্ব জমিতে এবছর পশুর হাট বন্ধ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপারসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের কাছে ওই কোরবানি পশুর হাট বন্ধ করার জন্য বলা হয়েছে।

রেলওয়ের বিভাগীয় ভূ-সম্পত্তি কর্মকর্তা মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, আসন্ন কোরবানির ঈদকে উপলক্ষ্য করে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এলাকায় সাতটি হাটের ইজারা দেয়া হয়। এর মধ্যে বেশিরভাগ হাটই সিটি কর্পোরেশনের সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায়। নাসিক ৪,৬,৮ ও ১০ নং ওয়ার্ডে চারটি পশুর হাট ইজারা দেয় নাসিক। এর মধ্যে নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের এসও রোড এলাকার হাটটি রেলওয়ের জমিতে। এই হাটের ইজারাদার নাসিক ৬নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মন্ডলের ঘনিষ্ঠ সহযোগী আতাউর রহমান।

জানা যায়, ইজারাদার আতাউর রহমান হলেও এর সার্বিক ব্যবস্থাপনা করছেন সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম মন্ডল। সম্প্রতি ওই হাটটি বন্ধের জন্য নির্দেশ দিয়েছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

রেলওয়ের ভূ-সম্পত্তি বিভাগীয় কর্মকর্তা মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এই আদেশ দেয়া হয়। পরবর্তীতে ওই চিঠিটির অনুলিপি রেল মন্ত্রীর অবগতীর জন্য মন্ত্রি মহোদয়ের একান্ত সচিব, নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয়, জেলা পুলিশ সুপার কার্যালয়, প্রধান ভূ-কর্মকর্তা (পূর্ব) বাংলাদেশ রেলওয়ে চট্টগ্রাম, বিভাগীয় রেলওয়ে ব্যবস্থাপক, বাংলাদেশ রেলওয়ে ঢাকা, সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন দফরের পাঠানো হয়।

চিঠিতে রেলওয়ের ভূ-সম্পত্তি বিভাগ উল্লেখ করে, ১২ জুলাই তারিখে ঈদ উল আযহা উপলক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন সাতটি অস্থায়ী পশুর হাটের ইজারার বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়। উক্ত ইজারা বিজ্ঞপ্তিতে নাসিক ৬নং ওয়ার্ড এসও রোড বটতলা চৌরাস্তা বালুর মাঠ ভূমির মালিক বাংলাদেশ রেলওয়ে। দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী রেলভূমিতে গরুর হাট বসাতে হলে অনুমতি নেয়ার বিধান আছে। এক্ষেত্রে রেলওয়ের কোনো অনুমতি গ্রহণ করা হয়নি।

উল্লেখ্য হিন্দুদের পূজোর সময়ে রাস্তা বন্ধ করে মুর্তি রাখা হলেও নিয়ম এসে পড়ে মুসলমানদের উৎসবের উপরই। হিন্দু ঘেষা আওয়ামী লীগের এমন দ্বিমুখী আচরণ লক্ষ্য করা গেছে সবসময়ই। তাই সাধারণভাবেই এই সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারছে না সাধারণ মুসলিম জনগণ।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন