টোগো || আল-কায়েদার বীরত্বপূর্ণ হামলায় ৫৫ শত্রু সেনা হতাহত

ত্বহা আলী আদনান

3
935

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ টোগোতে একইদিনে ৫টি এলাকায় সফল হামলা চালিয়েছেন ইসলামি প্রতিরোধ যোদ্ধারা। এতে অন্তত ২৫ শত্রু সৈন্য নিহত হয়েছে।

বিবরণ অনুযায়ী, গত ১৪ জুলাই ছিলো টোগিয়ান সেনাবাহিনীর জন্য এক কালো অধ্যায়ের সবচাইতে দূর্বিষহ দিন। কেননা এদিন দেশটির কুফ্ফার সেনাবাহিনীর ৫টি অবস্থানে একযোগে বীরত্বপূর্ণ হামলা চালান আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী ‘জেএনআইএম’ এর বীর মুজাহিদগণ।

দিনের আলো অস্তমিত হলে যখন চতুর্দিক রাতের কালো আধারে ছেয়ে যায়, তখন মুজাহিদগণও টোগোর সামরিক বাহিনির উপর রাত নামিয়ে আনেন, একযোগে হামলা চালাতে শুরু করেন তারা ও ৫ ঘাঁটিতে। প্রাথমিক তথ্য মতে, মুজাহিদদের অতর্কিত এই হামলায় ইসলামের শত্রু অমুসলিম টোগো বাহিনীর অন্তত ২৫ সেনা সদস্য নিহত হয়েছে। এই রাতের হামলায় আহত হয়েছে আরও ৩০ এরও বেশি অমুসলিম শত্রুসেনা।

এদিকে আল-কায়েদার বীর যোদ্ধাদের হাতে টোগো সামরিক বাহিনী নিজেদের শোচনীয় পরাজয় ঢাকতে নানারকম অপপ্রচারের আশ্রয় নিয়েছে।

জামা’আত নুসরাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন (জেএনআইএম) কর্তৃক পরিচালিত বরকতময় এই হামলাগুলো টোগোর উত্তর সীমান্তের কেপেম্বলি, ব্লামোঙ্গা, লালাবিগা এবং সউগতাঙ্গু এলাকায় অবস্থিত সামরিক চেকপোস্টগুলো লক্ষ্য করে চালানো হয়েছে। ইসলামি প্রতিরোধ যোদ্ধারা এই অভিযানে মাঝারি ধরনের অস্ত্র ব্যবহার করেন। নিজেদের মধ্যে কোন হতাহত ছাড়াই অতর্কিত এই অভিযানটি প্রায় ২০ মিনিটের মধ্যেই সমাপ্ত করেন মুজাহিদগণ।

উল্লেখ্য যে, এর আগে গত মে মাসে প্রকাশ্যে অফিসিয়াল ঘোষণা করে টোগোতে অভিযান শুরু করেন ‘জেএনআইএম’এর ইসলামি প্রতিরোধ যোদ্ধাগণ। সে মাসে মুজাহিদের এক হামলাতেই টোগোলিজ সেনাবাহিনীর কমপক্ষে ৮ সেনা নিহত এবং আরও ১৩ সেনা সদস্য আহত হয়।

3 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন