বুরকিনান সেনা ব্যারাকে আল-কায়েদার অভিযানে অন্তত ১৭ সেনা নিহত

আলী হাসনাত

0
353

পশ্চিম আফ্রিকার দেশ বুরকিনা ফাসোতে দেশটির সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে সম্প্রতি ৪টি অভিযান পরিচালনা করেছেন আল-কায়দা সংশ্লিষ্ট ইসলামি প্রতিরোধ যোদ্ধারা। এর ২টিতেই সামরিক বাহিনীর অন্তত ১৭ সৈন্য নিহত হয়েছে বলে জানা গেছে। সেই সাথে মুজাহিদগণ অনেক গণিমত লাভ করেছেন।

আয-যাল্লাকা মিডিয়া সূত্রে জানা গেছে, আল-কায়েদা সংশ্লিষ্ট জামা’আত নুসরাতুল ইসলাম ওয়াল মুসলিমিন (জেএনআইএম) যোদ্ধারা গত ৩০ আগস্ট বুধবার বুরকিনা ফাসোর জাবগা রাজ্যের টুর এলাকায় একটি সামরিক অভিযান পরিচালনা করেছেন। এতে বুরকিনান সেনাবাহিনীর অন্তত ৫ সৈন্য নিহত হয়েছে।

সূত্রমতে, অভিযানটি টুর এলাকায় অবস্থিত বুরকিনান সেনাবাহিনীর একটি ব্যারাক লক্ষ্য করে চালানো হয়। ফলস্বরূপ হতাহতের উক্ত ঘটনা ঘটে। সেই সাথে জেএনআইএমের প্রতিরোধ যোদ্ধারা সামরিক ব্যারাক থেকে জব্দ করেছেন ৩টি গাড়ি, ২০টি মোটরসাইকেল, ৩টি দুশকা, ৮টি বেকা, ৫টি আরপিজি, ২৮টি ক্লাশিনকোভ, ৪২টি আরপিজির শেল, ১০৭টি গোলাবারুদ ভর্তি বাক্স, ৩৫০টি বুলেটবক্স সহ অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম।

জেএনআইএম প্রতিরোধ যোদ্ধাদের প্রাপ্ত গণিমতের একাংশ

এদিন ‘জেএনআইএম’ মুজাহিদিন কাঙ্গোসি রাজ্যের কেন্দ্রীয় শহরের উপকন্ঠে সেনাবাহিনীর একটি আক্রমণ প্রতিহত করেছেন। এসময় মুজাহিদদের তীব্র আঘাতে অনেক সৈন্য হতাহত হয়। সেই সাথে মুজাহিদগণ ঘটনাস্থল থেকে ২টি গাড়ি, ১টি দুশকা, ৩টি বেকা, ১টি আরপিজি, ১০টি ক্লাশিনকোভ, ১টি ড্রোন এবং ১টি মোটরসাইকেল সহ অন্যান্য অনেক সামরিক সরঞ্জাম জব্দ করেছেন।

‘জেএনআইএম’ যোদ্ধারা গত ১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার কাঙ্গোসি রাজ্যেরই উপতাবা এলাকায় অবস্থিত বুরকিনান সেনাবাহিনীর একটি সদর দফতর লক্ষ্য করেও সফল অভিযান পরিচালনা করছেন। এই অভিযানে বুরকিনান সেনাবাহিনীর ৭ সদস্য নিহত হয়েছিল। এর আগে অর্থাৎ গত ২৭ আগস্ট, মুজাহিদগণ আরও একটি অভিযান পরিচালনা করেন ঘাওয়া রাজ্যের সাগফার এলাকায়। এতে বুরকিনান সামরিক বাহিনীর আরও ৫ সদস্য নিহত হয়।

অভিযান শেষে মুজাহিদগণ ঘটনাস্থল থেকে ৯টি ক্লাশিনকোভ, ১টি পিস্তল এবং ১২টি মোটরসাইকেল সহ অন্যান্য সামরিক সরঞ্জাম জব্দ করেছেন।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন