স্কুলে নিকাব নিষিদ্ধ ঘোষণা করলো মিশর

ইউসুফ আল-হাসান

0
760
মিশরের নিকাব পরিহিত মুসলিম নারী, ছবি: মিডল ইস্ট আই।

পশ্চিমাদের সাথে পাল্লা দিয়ে ইসলাম বিরোধী আইন প্রনয়নে প্রতিযোগীতায় লিপ্ত হয়েছে আরব রাষ্ট্রগুলো। মাত্র কদিন আগেই ইউরোপীয় রাষ্ট্র ফ্রান্স স্কুলে মুসলিম ছাত্রীদের নিকাব পরিধানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। এ নিয়ে গোটা বিশ্বের মুসলিমরা যখন হতাশ ও ক্ষুব্ধ, ঠিক সেই মুহুর্তে মুসলিমপ্রধান রাষ্ট্র মিশরের স্কুলে ছাত্রীদের নিকাব পরিধানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে দেশটি।

মিডল ইস্ট আই-এর বরাতে জানা যায়, আগামী ৩০ সেপ্টেম্বর থেকে দেশটিতে শুরু হতে যাচ্ছে নতুন শিক্ষাবর্ষ। আর এর আগেই স্কুলে নিকাব নিষিদ্ধের ঘোষণা দিয়েছে দেশটির শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

ঘোষণা অনুযায়ী, শিক্ষাবর্ষের প্রথম দিন থেকেই স্কুলে এ নির্দেশ কার্যকর করা হবে বলে জানিয়েছে দেশটির শিক্ষামন্ত্রী রেদা হেজাজী। শিক্ষামন্ত্রী বলেছে, ‘শিক্ষার্থীরা ইচ্ছা করলে হেডস্কার্ফ পরতে পারবে। কিন্তু তাদের মুখ ঢেকে রাখে এমন নিকাব পরতে পারবে না।’

উল্লেখ্য যে, দেশটিতে দীর্ঘ সময় পশ্চিমা মদদপুষ্ট সেক্যুলার স্বৈরশাসকরা ক্ষমতা আকড়ে রেখেছিল। এরা দেশটিতে পশ্চিমা সংস্কৃতির অনুকরণ ও মুসলিমদের ওপর জুলুম-নিপিড়ন করে এসেছে দীর্ঘ কয়েক যুগ ধরে। এর মধ্যে ২০১২ সালে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় দেশটিতে প্রথমবারের মতো ক্ষমতা গ্রহণ করে ইখওয়ানুল ‍মুসলিমিন বা মুসলিম ব্রাদারহুড, আর প্রেসিডেন্ট হন মুহাম্মাদ আল-মুরসি। কিন্তু পশ্চিমা মদদে তাকেও ক্ষমতাচ্যুত করা হয়, এরপর ক্ষমতায় আসে সেনাপ্রধান জেনারেল আবদুল ফাত্তাহ আল-সিসি।

এর পর থেকেই মিসরে ইসলামের ওপর আরও জোরালোভাবে রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক আগ্রাসন চালিয়ে আসছে সে। আর পশ্চিমা মদদদাতাদের সন্তুষ্ট করে নিজের ক্ষমতার মসনদ নিষ্কণ্টক রাখতেই হয়তো এবার স্কুলে ছাত্রীদের নিকাব পরিধানের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়েছে সিসি সরকারের পক্ষ থেকে।



তথ্যসূত্র:
1. Egypt bans niqab in schools
https://tinyurl.com/25jp6dx6

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধ৯/১১ অভিযান: যে আলোচনা প্রতিষ্ঠিত হওয়া জরুরী
পরবর্তী নিবন্ধমুসলিমদের বিরুদ্ধে সংঘাতের এই ইতিহাস ১১ সেপ্টেম্বর শুরু হয়নি