মুসলিম দেশগুলোর উচিত গাজাকে অস্ত্র সরবরাহ করা: ইসমাইল হানিয়াহ

- মুহাম্মাদ মহসিন

0
470
সুবিধামত ফন্ট ছোট বড় করুনঃ

হামাসের রাজনৈতিক ব্যুরো প্রধান ইসমাইল হানিয়া গত ৯ জানুয়ারি তার বিবৃতিতে বলেছেন যে, গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি বর্বরতার বিরুদ্ধে প্রতিরোধ যুদ্ধ অব্যাহত রয়েছে। এসময় তিনি “ফিলিস্তিনিদের অস্ত্র সরবরাহ করার জন্য মুসলিম রাষ্ট্রগুলিকে” আহ্বান জানান।

কাতারের রাজধানী দোহায় ইসমাইল হানিয়াহ তার বিবৃতিতে বলেন, “আমরা দেখতে পাচ্ছি যে, পশ্চিমা বিশ্বের দেশগুলো দখলদারিত্বের সমর্থনে অস্ত্র সরবরাহ করছে। তাই এখন সময় এসেছে মুসলিম রাষ্ট্রগুলোরও গাজায় প্রতিরোধ যোদ্ধাদের অস্ত্র দিয়ে সমর্থন করার। কারণ এটি শুধু ফিলিস্তিনি জনগণের যুদ্ধ নয়।… আর আমাদের উচিত ৭ অক্টোবরের বিজয়ের মুহূর্ত ধরে রাখা এবং এটিকে আরও মজবুতভাবে গড়ে তোলা। সময় আমাদের পক্ষে; সময় এসেছে অস্ত্রের জিহাদের।”

ইসমাইল হানিয়াহ আরও বলেন,

“৭ অক্টোবরের আক্রমণ “ইসরাইল কর্তৃক ফিলিস্তিনকে প্রান্তিক করার প্রচেষ্টার প্রতিক্রিয়া হিসাবে আবির্ভূত হয়েছিল।” এই যুদ্ধে ইসরায়েল ভারি খরচ বহন, নিজ বাহিনীর ক্ষতি শিকার এবং গণহত্যার সংঘটিত করা ছাড়া গাজায় তার ৩টি লক্ষ্যের কোনটিই অর্জন করতে পারে নি।

ওহে! আমাদের মুসলিম জাতির সূর্য সন্তানরা… এরকম ঐতিহাসিক মুহূর্ত খুব কমই আসে। এই মুহূর্তটিকে পিছলে যেতে দিও না… [ফিলিস্তিনিদের] দৃঢ়তা না থাকলে বিশ্বের বিবেক চূর্ণ হয়ে যেত।

আমাদের এই মুহূর্তটিকে পিছলে যেতে দেওয়া উচিত নয়। সময় এসেছে। ওহে, আমাদের ইসলামি জাতির সন্তানেরা! ওহে, বিশ্বের মুক্ত মানুষ! এমন ঐতিহাসিক মুহূর্ত খুব কমই আসে। এই মুহূর্তটিকে হারিয়ে যেতে দিও না। আমাদের জাতি  এবং আমাদের ইসলামিক স্কলারদের কাছে এমন ঐতিহাসিক মুহূর্ত খুব কমই আসে। এই মুহূর্তটিকে পিছলে যেতে দেবেন না, কারণ যদি এমনটা হয়, তাহলে এমন মুহূর্ত ফিরে আসার আগে আমরা জানি না কত দশক অপেক্ষা করতে হবে।”

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধআফগানিস্তানে ইমারতে ইসলামিয়ার নেতৃবৃন্দের সাথে মাওলানা ফজলুর রহমানের সাক্ষাৎ
পরবর্তী নিবন্ধ১২ বছরের মাদ্রাসা ছাত্রদের ‘সন্ত্রাসী’ আখ্যা দিয়ে পুলিশের মারধোর