ফিলিস্তিন জুড়ে চলছে ইসরাইলী তান্ডব, ২ হাজারেরও অধিক মুসলিম গ্রেফতার

0
473
ফিলিস্তিন জুড়ে চলছে ইসরাইলী তান্ডব, ২ হাজারেরও অধিক মুসলিম গ্রেফতার

দখলদার ইসরাইলী বাহিনী অবরুদ্ধ ফিলিস্তিনে নতুন উদ্যোমে মুসলিমদের পাইকারি হারে গ্রেফতার করা শুরু করেছে। ফিলিস্তিন জুড়ে চলমান এ গ্রেফতার অভিযানে দুই হাজার অধিক নিরাপরাধ মুসলিমকে আটক করেছে দখলদার ইসরাইল।

গত ২৮ মে শুক্রবার আরব তাৎক্ষণিক কমিটি জানায়, সাম্প্রতিক গ্রেফতার অভিযানে অভিশপ্ত ইহদীদের অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল তিন শতাধিক অভিযান চালিয়ে ১৭০০-এরও অধিক ফিলিস্তিনি মুসলিমকে আটক করেছে।

ফিলিস্তিনে কর্মরত প্রত্যক্ষদর্শী, ওয়াচডগ জানিয়েছে, দখলদার ইসরাইলী কর্তৃপক্ষের তথাকথিত “আইন বাস্তবায়ন” ক্যাম্পেইন শুরু হওয়ার পর থেকে প্রতিদিন গড়ে ১০০ জন করে ফিলিস্তিনি মুসলিমকে গ্রেফতার করা হচ্ছে।

যদিও গত ২৮ মে শুক্রবার ইসরাইলী পুলিশ এক বিবৃতিতে জানায়, প্রায় ৭০ জনের মতো ফিলিস্তিনিকে তারা গ্রেফতার করেছে। সাম্প্রতিক চলমান গ্রেফতার ক্যাম্পেইনে তারা ৪১৮ মুসলিমকে আটক করেছে।

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, গত দুই সপ্তাহের গ্রেফতার অভিযানে ২ হাজারেরও অধিক ফিলিস্তিনিকে তারা আটক করেছে। আর প্রায় ১৭৫ টি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আরব তাৎক্ষণিক কমিটি আরো জানায়, লুদ শহরের অবরুদ্ধ মুসা হাসুনেহ ও অবরুদ্ধ উম আল ফাহেমের মুহাম্মাদ কিউয়ানেই শুধু ১৫০ বার হামলা হয়েছে।

জানা গেছে, রাজধানী জেরুজালেম সহ ফিলিস্তিনের বিভিন্ন শহরে দখলদার ইসরাইলি সৈন্যদের দ্বারা ২৫ জন সাংবাদিক আক্রমণের শিকার হয়েছেন।
অভিশপ্ত ইহুদীদ কর্তৃক ঘরবাড়িতে ৭২ টি, গাড়িতে ১২৮ বার ও দোকানগুলোতে ৭ বার হামলার শিকার হয়েছেন ফিলিস্তিনি মুসলিমরা।

গত ১৮ ই মে মঙ্গলবার ফিলিস্তিনে ইহুদি আগ্রাসন বিরোধী সাধারন ধর্মঘটে অংশ নিয়ে অর্ধ শতাধিক ফিলিস্তিনি শ্রমিক দখলদার ইসরাইলি সৈন্যদের দ্বারা আক্রান্ত হন।

এদিকে “বিচারের জন্য আইনজীবী” নামক একটি সংগঠন জানিয়েছে, সম্প্রতি ফিলিস্তিনের রামাল্লায় দখলদার ইসরাইলি প্রশাসন ২০ জন ফিলিস্তিনি মুসলিমকে পলিটিক্যাল গ্রেফতার ধারায় আটক করেছে।

সংবাদ মাধ্যমে প্রত্যক্ষদর্শী ওয়াচডগ জানায়, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখি ও রাজধানী জেরুজালেম ও অবরুদ্ধ গাজার মুসলিম ভাইদের সমর্থনে সংহতি জানিয়ে বিক্ষোভে অংশগ্রহণের কারণে সমাজ কর্মী ও প্রাক্তন জেলবন্দীদের রাজনৈতিক গ্রেফতারের উক্ত ধারায় টার্গেট করা হচ্ছে।

ওয়াচডগ আরো জানায়, ফিলিস্তিনি সংবিধান ও আন্তর্জাতিক আইনের তোয়াক্কা না করে গ্রেফতারকৃতদের উপর নির্যাতন, নির্মমভাবে প্রহার ও লাঞ্চিত করা হচ্ছে।
আটককৃতদের তাদের আইনজীবীর সাথে দেখা করার অধিকারটুকুও হরণ করা হয়েছে।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন