মন্ত্রিসভার সদস্যদের এখনো কালো তালিকাভুক্ত করে রাখা দোহা চুক্তির লঙ্ঘন: তালিবান

2
1135
মন্ত্রিসভার সদস্যদের এখনো কালো তালিকাভুক্ত করে রাখা দোহা চুক্তির লঙ্ঘন: তালিবান

সম্প্রতি পেন্টাগনের কর্মকর্তারা মন্তব্য করেছে যে, ইমারতে ইসলামিয়ার নবগঠিত মন্ত্রিসভার কিছু সদস্য ও মরহুম জালালুদ্দিন হাক্কানী রহিমাহুমুল্লাহ’র পরিবারের সদস্যরা (আল্লাহ তাঁর উপর সন্তুষ্ট) মার্কিন ব্ল্যাকলিস্টে রয়েছেন এবং এখনও তাদেন লক্ষ্যবস্তুতে রয়েছেন।

ইমারতে ইসলামিয়ার মন্ত্রিসভার সদস্যদের ক্রুসেডার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের কালো তালিকায় রাখার বিষয়ে গত বৃহস্পতিবার তালিবান একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছে।

ইমারতে ইসলামিয়া উক্ত বিবৃতিতে জানিয়েছে, ‘ ইমারতে ইসলামিয়া যুক্তরাষ্ট্রের এই অবস্থানকে দোহা চুক্তির সুস্পষ্ট লঙ্ঘন বলে মনে করে যা যুক্তরাষ্ট্র বা আফগানিস্তানের স্বার্থে নয়।’ বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে যে, ‘সম্মানিত হাক্কানী সাহেবের পরিবার ইমারতে ইসলামিয়ার অংশ এবং তাদের আলাদা কোনো নাম বা সাংগঠনিক কার্যক্রম নেই।’ দোহা চুক্তির অধীনে ‘ইমারতে ইসলামিয়ার সকল কর্মকর্তারা কোন মতবিরোধ ছাড়াই ঐক্যমতের ভিত্তিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সাথে আলাপচারিতায় অংশ নিয়েছিল’। যার ফলে চুক্তিতে ইমারতে ইসলামিয়ার সকল সদস্যদের জাতিসংঘ এবং মার্কিন কালো তালিকা থেকে সরানো কথা ছিল। এটি এমন একটি দাবি ও চুক্তি যা এখনও বৈধ রয়েছে। “কিন্তু আমেরিকা চুক্তি অনুযায়ী এখনো সবাইকে কালো তালিকা থেকে সরায় নি, যা খুবই নিন্দনীয় এবং চুক্তির প্রতি যুক্তরাষ্ট্রে সুস্পষ্ট অবজ্ঞা।”

বিবৃতিতে ইমারতে ইসলামিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য দেশের উস্কানিমূলক বক্তব্য এবং আফগানিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার চেষ্টার তীব্র নিন্দা জানায়। বিবৃতিতে আরও বলা হয়, মার্কিন কর্মকর্তাদের এই ধরনের মন্তব্য অতীতের ব্যর্থ পরীক্ষার পুনরাবৃত্তি এবং এই ধরনের অবস্থান আমেরিকার জন্য ক্ষতিকর।

ইমারতে ইসলামিয়া বিবৃতিতে কূটনৈতিক যোগাযোগের মাধ্যমে অবিলম্বে ‘ আমেরিকার ভুল নীতিগুলো’ প্রত্যাহার করার আহ্বান জানিয়েছে।

2 মন্তব্যসমূহ

  1. ইহুদি কাফের জাতি, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের এর জামানায়, ওয়াদা করে, ওয়াদা ভঙ্গ করেছে, আমরা ওদেরকে চৌদ্দশ বৎসর আগে থেকে চিনি, এখন নতুন করেছিলাম কিছু নেই, ওরা বিশ্বাসঘাতকতা করবে, এটাই বাস্তবতা, আর আমরা তাদের বিশ্বাসঘাতকতার ব্যাপারে, আগে থেকে জানা আছে ইনশাআল্লা,…….. তাদের উচিত জবাব দেওয়া হবে ইনশাআল্লাহ

  2. ইহুদি কাফের জাতি, রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের এর জামানায়, ওয়াদা করে, ওয়াদা ভঙ্গ করেছে, আমরা ওদেরকে চৌদ্দশ বৎসর আগে থেকে চিনি, এখন নতুন করে চিনার কিছু নেই, ওরা বিশ্বাসঘাতকতা করবে, এটাই বাস্তবতা, আর আমরা তাদের বিশ্বাসঘাতকতার ব্যাপারে, আগে থেকে জানা আছে ইনশাআল্লা,…….. তাদের উচিত জবাব দেওয়া হবে ইনশাআল্লাহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন