আবারো ফেসবুকে ইসলাম ও মুহাম্মাদ (ﷺ) নিয়ে হিন্দুত্ববাদীদের অশ্লীল ও কটূক্তিপূর্ণ স্ট্যাটাস

0
1746
আবারো ফেসবুকে ইসলাম ও মুহাম্মাদ (ﷺ) নিয়ে হিন্দুত্ববাদীদের অশ্লীল ও কটূক্তিপূর্ণ স্ট্যাটাস

ভারতের হিন্দুত্ববাদীদের এদেশীয় দালালরা কিছুদিন পর পরই পবিত্র ইসলাম ধর্ম ও আল্লাহর রাসূল ﷺ নিয়ে কটুক্তি করে। নানাভাবে মুসলিমদের কলিজায় আঘাত দেয়।
এরই ধারাবাহিকতায় এবার বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম ও মুহাম্মদ(ﷺ)-কে নিয়ে অশ্লীল ও কটূক্তিপূর্ণ স্ট্যাটাস দেয় কৌশিক বিশ্বাস নামে এক হিন্দু যুবক। এই পোস্টকে কেন্দ্র করে উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়। সোমবার ১১ এপ্রিল মোরেলগঞ্জ উপজেলার নিশানবাড়িয়া ইউনিয়নে এ ঘটনা প্রকাশ্যে আসে। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের আনায় স্থানীয় মুসল্লিরা মিছিল শুরু করেন। এ সময় ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা প্রতিবাদে বিক্ষোভ করলে পুলিশ বাধা হয়ে দাাঁড়ায়।

এ পর্যন্ত ১৭ জন মুসলিমকে আটক করেছে হিন্দুত্ববাদী প্রশাসন। মুসলিমদের হয়রানি করতে গায়েবী মামলা দিয়েছে।

এদিকে, হিন্দু যুবক ’কৌশিক বিশ্বাস’ কে বাঁচাতে তাকে দালাল পুলিশ নিজেদের হেফাজতে নিয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মুসলমানদের মধ্যে চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে।। হিন্দুত্ববাদীদের রক্ষা করার জন্য দালাল প্রশাসন হেফাজতে নেয় ঠিকই। মুসলিমরা শান্ত হলেই তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়। পরে দালাল প্রশাসন ও মিডিয়ার মাধ্যমে সাজানো হয় আইডি হ্যাকের গল্প ।

বাগেরহাট জেলা পুলিশের মিডিয়া সেলের প্রধান সমন্বয়কারী পুলিশ পরিদর্শক এস এম আশরাফুল আলম বলেছে, কৌশিক বিশ্বাস ফেসবুকে ধর্ম নিয়ে বেশ কয়েকটি আপত্তিকর পোস্ট এবং কমেন্টও করেছে। বিষয়টি জানাজানি হলে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতকারী কৌশিক বিশ্বাসের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে সে আরও জানায়, কৌশিক বেশ কিছুদিন আগে ভারতে চলে যায়। ৭ থেকে ৮ দিন আগে সে বাড়িতে এসে এলাকায় সাম্প্রদায়িক উত্তেজনা সৃষ্টি করে।

বিশ্লেষকগণ বলেছেন, আসলে হিন্দুত্ববাদীরা ভারতের মত বাংলাদেশেও মুসলিম গণহত্যার মাঠ প্রস্তুত করতেই বাংলাদেশী হিন্দুদের দ্বারা মুসলিমদের ক্ষেপিয়ে তুলছে। যেন মুসলিমদের উপর হামলা চালানোর কোন কারণ দাঁড় করানো যায়।

এ ঘটনার আগেও অনেক হিন্দু এমন ন্যক্কারজনক কাজ করেছে। কিন্তু প্রশাসন ও দালাল মিডিয়া বারবার আইডি হ্যাকের গল্প শুনিয়েছে। শুধু তাই নয় হিন্দুত্ববাদীদের দালাল প্রশাসন হিন্দুদের পক্ষ নিয়ে তাওহিদী নবীপ্রেমী মুসলিমদের উপর গুলি চালিয়েছে। ৯০% মুসলিমের দেশে নবীকে ﷺ কটুক্তিকারীদের পক্ষ নিয়ে মুসলিমদের উপর হামলা চালানোর অধিকার তাদের কে দিয়েছে- এমন প্রশ্ন অনেকের মনেই।

তথ্যসূত্র:
—–
১।ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম ও মহানবি হজরত মুহাম্মদ(ﷺ)-কে নিয়ে অশ্লীল ও কটূক্তিপূর্ণ স্ট্যাটাস
https://tinyurl.com/ve9ymycx
২।ফেসবুকে ইসলাম ধর্ম নিয়ে অবমাননাকর পোস্ট
https://tinyurl.com/y2dvcv6b

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন