ভারতে মুসলিম নির্যাতনের পাশাপাশি বৃদ্ধি পাচ্ছে নিকৃষ্ট হিন্দুত্ববাদী বর্ণপ্রথা

0
409

ভারতে ৩০ বছর বয়সী এক দলিত নারীকে গণধর্ষণ করেছে হিন্দুত্ববাদীরা। খবর ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসের। গত ৩১ জুলাই সন্ধ্যায় মুজাফফরনগর জেলার কোতোয়ালি থানায় এ ঘটনা ঘটে। খবরে বলা হয়, সন্ধ্যায় নিজ কাজের জন্য বাহিরে গেলে হিন্দুত্ববাদী সন্ত্রাসীরা ঐ নারীকে অস্ত্রের মুখে ধর্ষণ করে। এমনকি ঘটনাটি ভিডিও করে নিজেরাই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে দেয়। তারা জানে যে দলিত নারীকে নির্যাতনের কারণে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে না৷

ঐতিহাসিকভাবেই হিন্দুরা কুসংস্কারাচ্ছন্ন এক জাতি। নিজেদের মধ্যে জাত-পাতের শ্রেণিবৈষম্যের কারণে চরম হিংসাত্মক ও নৈরাজ্যবাদী মনোভাব পোষণ করে তারা একে অপরের প্রতি। বর্তমানে মাথাচাড়া দিয়ে উঠা হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলো ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র বানানোর ঘোষণা দিয়েছে আগেই। এখন হিন্দু নেতারা বলছে যে, হিন্দু রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা হলে সেখানে পুরোপুরি হিন্দু বিধান অনুযায়ী জাত-পাতের শ্রেণিবৈষম্য ফিরিয়ে আনা হবে।

ভারতে দলিতদের সবচেয়ে নিম্ন শ্রেণির মনে করে হিন্দুরা। হিন্দুদের মধ্যে চারটি বর্ণবেদ থাকলেও দলিতদের তারা আরও নিচু মনে করে পঞ্চমা নামেও উল্লেখ করে। নিম্ন শ্রেণির হওয়ায় প্রায়ই বর্ণবাদী হিন্দুদের নির্যাতনের মুখে পড়ে দলিতরা। জোর পূর্বক তাদেত জমি ছিনিয়ে নেয়া, পিটিয়ে হত্যা করা এখন নিত্যনৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ভারতীয় সরকারি পরিসংখ্যানে দেখা যায়, শুধুমাত্র ২০১৬ সালেই উত্তরখণ্ডে ৪০ হাজারের বেশি দলিত হিন্দুকে নির্মমভাবে নির্যাতন করা হয়েছে। নিম্ন বর্ণের হাওয়ায় বিভিন সুযোগ সুবিধা থেকে বঞ্চিত করা হয়েছে তাদের। তুচ্ছ ঘটনায় হত্যা করা হয়েছে অনেককে।

গত ২১ মার্চ রাজস্থানে এক দলিত ব্যাক্তি পাওনা টাকা চাওয়ায় ঘর থেকে ডেকে নিয়ে পুড়িয়ে খুন করে হিন্দুত্ববাদীরা। গত ৫ মে হায়দ্রাবাদে জনসম্মুখে এক দলিত ব্যাক্তিকে পিটিয়ে হত্যা করে হিন্দুত্ববাদীরা। এ সময় কোন হিন্দু ঐ ব্যাক্তিকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেনি। গত বছর ২১ জানুয়ারি রাজস্থানে এক দলিত ব্যাক্তিকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে হিন্দুত্ববাদীরা। গত বছর ৫ ডিসেম্বর উচ্চ বর্ণের হিন্দুদের সাথে বিয়ের অনুষ্ঠানে খাবার খাওয়ায় পিটিয়ে হত্যা করা হয় এক দলিত ব্যাক্তিকে।

ভারতে নিম্নশেণির হিন্দুদের সাথে উচ্চ বর্ণের হিন্দুদের এমন নির্যাতনে হাজার হাজার ঘটনা রয়েছে, এর যবনিকাপাত করেছিলেন মুসলিমরা ক্ষমতায় এসে। তবে অবস্থা এখন এমন পর্যায়ে এসেছে যে হিন্দুরা মনে করছে ভারত মানেই হিন্দুত্ববাদ। এখানে হিন্দুত্ববাদ ব্যাতিত অন্য কোন ধর্ম চলবেনা। এবং হিন্দুত্ববাদ ফিরিয়ে আনতে বেপরোয়া হিন্দু সংগঠনগুলো ইতোমধ্যেই মুসলিমদের সাথে সাথে নিম্ন বর্ণের হিন্দুদেরকেও হত্যা করতে শুরু করেছে। বাবরি মসজিদ ধ্বংস করে দিয়েছে। অন্যান্য মসজিদগুলোও ধ্বংস করতে অযুহাত দাঁড় করাতে চাইতে। মুসলিমদের গণহারে হত্যা করার প্রকাশ্য হুমকি দিচ্ছে। আসামের মুসলিমদের বাংলাদেশি তকমা দিয়ে তাড়িয়ে দিতে চাইচে।

বর্তমান পরিস্থিতিতে যে যেকোন সময় মুসলিমদের হত্যা করে রাম রাজত্ব প্রতিষ্ঠা করতে মরিয়া হয়ে আছে হিন্দুত্ববাদীরা। আর এর মাধ্যমে ফিরিয়ে আনতে চাই কুসংস্কারাচ্ছন্ন এক অন্ধকার ভারতকে৷ যেখানে প্রতিষ্ঠিত হবে নিকৃষ্ট হিন্দু বর্ণপ্রথা। অন্যদিকে বিশেষজ্ঞরাও সতর্ক বার্তা দিয়েছে ভারতে মুসলিম গণহত্যার ব্যাপারে।

 

এ অবস্থায় উপমহাদেশের মানবতা ও নিজেদের রক্ষায় হিন্দুত্ববাদী আগ্রাসন রুখতে নববী সুন্নাতের অনুসরণ করতে আহ্বান জানিয়েছেন উম্মাহ দরদী আলিমরা।



প্রতিবেদক :  ইউসুফ আল-হাসান



তথ্যসূত্র :

1.
UP: Dalit woman sexually harassed in Muzaffarnagar
https://tinyurl.com/2p8m3ths
2. Rajput man has been burnt to death by Dalits for asking for the money he lent to them
https://tinyurl.com/yckdrww2
3. ভিডিও লিংক (brutally a dalit man is killed in Ganganagar, Rajasthan)
https://tinyurl.com/4ac7mbaf
4. Dalit man killed by upper castes for eating with them
https://tinyurl.com/ykbyzbhr

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন