ভিডিও || আশ-শাবাবের স্পেশাল ফোর্স ও “উসামা বিন লাদেন মিলিটারি একাডেমি”

2
1669

আল-কায়েদা পূর্ব আফ্রিকা শাখা হারাকাতুশ শাবাব আল-মুজাহিদিন। সম্প্রতি পবিত্র ঈদুল আজহা উপলক্ষে ১ ঘন্টা দীর্ঘ এবং ৭টি ভাষায় উপলব্ধ “ঈদ উপহার” শিরোনামে একটি ভিডিও প্রকাশ করেছে। ভিডিওটি পবিত্র কুরআনের সূরা নিসার ৭৫ নাম্বার আয়াত দিয়ে শুরু করা হয়। এর পরপরই গাজায় মুসলমানদের বিরুদ্ধে জায়োনিস্ট ও ক্রুসেডার বাহিনীর আগ্রাসন ও গণহত্যার অত্যন্ত বেদনাদায়ক ফুটেজগুলি দেখানো হয়। সেই সাথে ভিডিওর প্রথম ১৮ মিনিটে জাতিসংঘ দ্বারা পরিচালিত বিদেশি বাহিনী, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তুর্কি বাহিনীর বিমান হামলায় সোমালি নাগরিকদের গণহত্যার সহ বিশ্বজুড়ে মুসলমানরা যেই নিপীড়ন আর গণহত্যার মুখোমুখি হচ্ছেন সেসবের কিছু দৃশ্য ধারণ করা হয়।

আর স্পেন থেকে শুরু করে চীনের পূর্ব তুর্কিস্তান পর্যন্ত মুসলিমদের বিরুদ্ধে চলা এই নিপীড়ন বন্ধে এবং উম্মাহকে রক্ষা করতে জিহাদ ফি সাবিলিল্লাহকে একমাত্র সমাধান হিসাবে চিহ্নিত করা হয়। আর এই একই প্রেক্ষাপটে এবং শত্রুকে পরাজিত করতে আল-কায়েদার অন্যান্য শাখাগুলোও বিশ্বের বিভিন্ন দেশে লড়াই করছেন বলেও জানানো হয়। এসময় আল-কায়েদা শাখা একিউআইএম, জেএনআইএম, একিউপি, একিউএস এবং হুররাস আদ-দ্বীনকে দেখিয়ে বুঝানো হয় যে, হারাকাতুশ শাবাব এবং অন্যান্য আল-কায়েদা শাখাগুলো একই লক্ষ্যে বিভিন্ন অঞ্চলে কাজ করছেন।

এরপর পরই সদ্য প্রকাশিত ভিডিওটিতে আশ-শাবাব তার বিশেষ ইউনিট গঠনের ঘোষণা দেয় এবং উক্ত ইউনিটের ভিডিও সম্প্রচার করতে শুরু করে। আর নতুন এই ইউনিটের প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের নামকরণ করা হয়েছে আল-কায়েদার প্রয়াত নেতা শহীদ শাইখ উসামা বিন লাদেন রহমাতুল্লাহি আলাইহি এর নামে।

প্রকাশিত ভিডিওতে নতুন ইউনিটকে প্রথমবারের মতো শাবাবের “স্পেশাল ফোর্স” হিসাবে চিহ্নিত করা হয়েছে। যদিও এর আগে শাবাবের গেরিলা স্কোয়াডের পাশাপাশি মুহাম্মদ বিন মাসলামা ও সালেহ আন-নাভান ব্যাটালিয়ন নামে ৩টি বাহিনীকে চিহ্নিত করা হয়েছিল।

আল-কাতাইব মিডিয়া কর্তৃক সদ্য প্রকাশিত ঘন্টাব্যাপী ভিডিওটিতে হারাকাতুশ শাবাবে যুক্ত হওয়া নতুন সদস্যদের উন্নত প্রশিক্ষণ নিতে দেখা যায়। বিন লাদেন সামরিক ক্যাম্পে এসকল যুবকদেরকে হালকা, ভারি ও মাঝারি অস্ত্র চালনার কৌশল, ড্রাইভিং দক্ষতা, হিট-এন্ড-রান কৌশলে অভিযান, সমুদ্রে নৌকা চালানো, সাঁতারের প্রশিক্ষণ, জিপ-লাইনিং, রক ক্লাইম্বিং, স্কেলিং, মানচিত্র চিহ্নিত করণ এবং টপোগ্রাফির উপর প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়। এছাড়াও শাবাবে যুক্ত হওয়া নতুন সদস্যদের শরিয়াহ্ কোর্সের পাশাপাশি সম্মিলিত অস্ত্র চালনা, কুচকাওয়াজ, মোটরসাইকেল চালানো ও ঘোড়ার পিঠে দৌঁড় সহ অন্যান্য সামরিক মহড়ায় অংশ নিতে দেখা যায়।

পুরো ভিডিও জুড়ে আল-কায়েদা কেন্দ্রীয় নেতৃত্বের প্রতি নিজেদের আনুগত্য প্রদর্শনে বিন লাদেন মিলিটারি ক্যাম্পের নামকরণ ছাড়াও আল-কায়েদার শীর্ষ নেতৃবৃন্দের ঐতিহাসিক বক্তব্যগুলো উপস্থাপন করা হয়। একই সাথে ভিডিওর বিভিন্ন অংশে আল-কায়েদার অন্যান্য শাখার পাশাপাশি ইমারাতে ইসলামিয়া আফগানিস্তানের সামরিক বাহিনীর জন্য নির্মিত পশতু ভাষার নাশিদ চালাতে দেখা যায়। মূলত পুরো ভিডিও জুড়েই এটি স্পষ্ট ছিলো যে, শাবাব নিজেকে তালিবানদের মডেলে সাজানোর চেষ্টা করছে। শাবাবের প্রকাশিত ভিডিওতে দেখানো সামরিক চিত্রগুলো অনেকাংশেই তালিবানদের বিশেষ বাহিনীর প্রশিক্ষণের সাথে মিল রয়েছে। সাধারণত এধরণের সামরিক প্রশিক্ষণের দৃশ্যগুলো ২০২১ সালে তালিবান মুজাহিদিন কাবুল বিজয়ের আগ মুহুর্তে ভিক্টোরিয়াস ফোর্স বা বিজয়ী বাহিনী নামক ভিডিও সিরিজে দেখা যেতো।

আর শাবাবের নতুন ভিডিওটিও যেনো সেই ইঙ্গিতই দিচ্ছে যে, বিদেশি বাহিনী প্রত্যাহারে যেমনিভাবে তালিবান আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে, তদ্রূপ সোমালিয়া থেকে বিদেশি বাহিনী প্রত্যাহারের সাথে সাথে আশ-শাবাবও সোমালিয়ার নিয়ন্ত্রণ নিবে। আর এই লক্ষ্যে শাবাব তার প্রতিটি সামরিক ইউনিট ও প্রসাশনিক কাঠামোকে প্রস্তুত করছে।

আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলো ২০১২ সাল থেকে বলে আসছে যে, শাবাবের সামরিক বাহিনীর সদস্য সংখ্যা ১২ হাজার থেকে ১৫ হাজার পর্যন্ত। আর স্থানীয় গণমাধ্যম সূত্র বলছে, শাবাব সাম্প্রতিক বছরগুলোতে প্রতি ৬ মাসে ৫-৬ হাজার নতুন যোদ্ধাকে প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে। সে হিসাবে বর্তমানে শাবাবের সামরিক বাহিনীতে সদস্য সংখ্যা প্রায় ৩০ হাজার পর্যন্ত পৌঁছানোর সম্ভাবনা রয়েছে, যা শাবাবের জন্য মোগাদিশু বিজয়ে গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

হারাকাতুশ শাবাবের বিশেষ ইউনিটের সামরিক প্রশিক্ষণের পুরো ভিডিওটি দেখতে নিচের লিঙ্কে যান-

আরবি: ১.১৪ জিবি
https://archive.gnews.to/index.php/s/2XmjwMbPYge28Rr

https://ok.ru/video/7097454299845

আরবি: ৭২০ (৪৯৫.০৩ এম্বি)
https://archive.gnews.to/index.php/s/E3Jj5Q44nR8xC97

ইংরেজি: ৭২০ (৪৯৮.৮০ এম্বি)

https://archive.gnews.to/index.php/s/jPyCqDi9BBHen9P

 

আরও দেখুনঃ ফটো রিপোর্ট || আশ-শাবাবের স্পেশাল ফোর্সের প্রশিক্ষণ ক্যাম্প

2 মন্তব্যসমূহ

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট – ২২ জুন, ২০২৪
পরবর্তী নিবন্ধফিলিস্তিনের জিহাদ || আপডেট – ২৩ জুন, ২০২৪