ফ্রান্সজুড়ে ‍ধৃষ্টতা: প্রাণাধিক প্রিয় রাসূলের অবমাননাকর কার্টুন দেখানো হচ্ছে দেয়ালে দেয়ালে

1
792
ফ্রান্সজুড়ে ‍ধৃষ্টতা: প্রাণাধিক প্রিয় রাসূলের অবমাননাকর কার্টুন দেখানো হচ্ছে দেয়ালে দেয়ালে

ধৃষ্টতার কালো ইতিহাস রচনা করতে যাচ্ছে হতভাগ্য ফ্রান্সের প্রশাসন ও সমাজ। রাষ্ট্রীয় মদদে দেশটির সরকারি ভবনের বিভিন্ন দেয়ালে দেখানো হচ্ছে শার্লি হেবদোর সেই ধৃষ্টতাপূর্ণ ইসলামবিদ্বেষী কার্টুন।

ত্রিভুবনে প্রিয় নবী, বিশ্বের ইতিহাসের সর্বশ্রেষ্ঠ মানুষ, দেড়শ কোটি মুমিনের শিরা-উপশিরায়, হৃদয়ের স্পন্দনে যার ভালোবাসা রক্তের ন্যায় প্রবহমান, যার প্রতি ভক্তি ও শ্রদ্ধা ইসলামের ভিত্তি এবং মুসলমানের মৌলিক পরিচয়, সেই ইমামুল আম্বিয়া, খাতামুন্নাবিয়্যীন মুহাম্মাদুর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর অবমাননাকর কার্টুন প্রজেক্টরের মাধ্যমে প্রদর্শন করছে হতভাগ্য ফ্রান্সবাসী। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ওই বিতর্কিত কার্টুনটি ব্যাপকভাবে প্রচার করতে শুরু করেছেন তারা। শুধু তাই নয়, কোথাও কোথাও সুরক্ষার জন্য প্রচুর পরিমাণে পুলিশও মোতায়েন করা হয়েছে।

সম্প্রতি ফ্রান্সে ক্লাসে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের কারনে স্যামুয়েল প্যাটি নামের এক শিক্ষককে শিরশ্ছেদ করে হত্যা করা হয়েছে। ঐ শিক্ষককে সম্মান জানাতে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেছেন যে ফ্রান্স কার্টুন প্রদর্শন বন্ধ রাখবে না। সেই সম্মানপ্রদর্শনেরই অংশ হিসেবেই এ অভিশপ্ত কাজ করছে ফ্রান্সের প্রশাসন।

ফ্রান্সের ওসিটনেই এলাকার সভাপতি ক্যারোল ডেলগা বুধবার ট্যুইটারে কার্টুন দেখানোর ঘোষণা করেন। উনি বলেন, শিক্ষক স্যামুয়েলকে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেওয়ার জন্য পয়গম্বর মোহম্মদের বিতর্কিত কার্টুন দেখানো হবে।

ধর্মনিরপেক্ষতা ও বাকস্বাধীনতার নিজস্ব চিন্তাধারা ব্যক্ত  করে তিনি বলেন, এটি একটি কঠোর পদক্ষেপ হবে, যেটি আমাদের দেশের মূল্যকে বোঝাতে সাহায্য করবে। ডেলগা বলেন, ‘এই প্রতীকী পদক্ষেপটি ছাড়াও আমি আমার সহকর্মীদের কাছে একটি বার্তা পাঠাতে চাই যে ধর্মনিরপেক্ষতা, মত প্রকাশের স্বাধীনতা এবং বিবেকের স্বাধীনতা নিয়ে কোনও আপস করা হবে না। এটিই আমাদের প্রজাতন্ত্রের মডেলের ভীত।”

প্যারিসের বিখ্যাত আইফেল টাওয়ারের নিচে মুসলিম নারীদের নিগ্রহ করাসহ গোটা ইউরোপজুড়ে ইসলাম ও মুসলিম নির্যাতনের ভুরিভুরি নৃশংস ঘটনা সত্ত্বেও ডেলগা বলেন, গণতন্ত্রের শত্রুদের সামনে মাথা নোয়াব না। যারা ধর্মকে যুদ্ধের অস্ত্র হিসাবে ব্যবহার করে তাদের সামনে আমরা দুর্বল হব না। এই প্রজাতন্ত্রকে নষ্ট করার রাজনৈতিক উদ্দেশ্য আছে এমন লোকের সামনে রুখে দাঁড়াতে হবে।

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন