ফটো রিপোর্ট | মোদিবিরুধী আন্দোলনে হিন্দুত্ববাদী আওয়ামী গুন্ডা বাহিনীর হামলার কিছু দৃশ্য

6
1330
ফটো রিপোর্ট | মোদিবিরুধী আন্দোলনে হিন্দুত্ববাদী আওয়ামী গুন্ডা বাহিনীর হামলার কিছু দৃশ্য

গত কয়েকদিন ধরেই বিভিন্ন দল খুনি মোদির বাংলাদেশ সফর নিয়ে বিক্ষোভ-মিছিল করে আসছে। অপরদিকে ইসলামী দলগুলোও মুসলিম হত্যাকারী খুনী মোদির বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্থানে আন্দোলন করে।

সর্বশেষ গত শুক্রবার এদেশের সর্বস্তরের জনগণের মোদিবিরুধী আন্দোলনকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে ভারতের গোলাম মুরতাদ হাসিনা সরকার তার পোশা গুন্ডা বাহিনীর নিরাপত্তায় মোদির ঢাকা সফর নিশ্চিত করে। এরপর গতকাল থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ-মিছিল করেন জনসাধারণ।

মোদিবিরুধী এসব বিক্ষোভ-মিছিলের জনতাকে লক্ষ্য করে হামলা চালায় হিন্দুত্ববাদী ভারতের মুশরিক মোদির গোলাম পুলিশ, র‍্যাব, ছাত্রলীগ ও যুবলীগ। এসময় এসব হিন্দুত্ববাদী মুজিব সৈন্যরা দেশীয় অস্ত্রের পাশাপাশি অগ্নিস্ত্র দিয়ে মুসল্লি ও সাধারন জনতার উপর হামলা চালিয়েছে। এতে অন্তত ৮জন ছাত্র-জনতা শাহাদাতবরণ করেছেন এবং আহত হয়েছেন আরো অন্তত দেড় শতাধিক মুসলিম।

হযরত খুবাইব রা: এর ভাষায় বলবো

اللَّهُمَّ أَحْصِهِمْ عَدَدًا، وَاقْتُلْهُمْ بَدَدًا، وَلاَ تُبْقِ مِنْهُمْ أَحَدًا

হে আল্লাহ! আপনি তাদের প্রত্যেককে গুণে রাখুন, তাদেরকে একে একে ধ্বংস করুন এবং তাদের একজনকেও আপনি ছেড়ে দিবেন না।

 

6 মন্তব্যসমূহ

  1. দুঃখের সাথে বলতে হয় যে,আর কত রক্ত প্রবাহিত হলে,আর কত রক্ত ঝরলে হুঁশ ফিরে আসবে এই দেশের আলেম,ত্বলাবা আর জনতার???
    এখনও কি একথা বুঝার সময় হয়নি যে,এই পথে শুধু রক্তই ঝরবে তার বদলা আসবে না?
    একথা বুঝা দরকার যে,এখন ফিরে আসার সময় কোরআনের পথে।
    আল্লাহ নিহত সকল ভাইদেরকে শহিদ হিসেবে কবুল করুণ।আর আমাদেরকে সঠিক পথে ফিরে এসে বিপ্লব করার তাওফিক দিন।
    আমীন।

    • ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলায়হি রাজিঊন। আল্লাহ তায়ালা নিহত ভাইদেরকে শহীদ হিসেবে কবুল করুন। এবং আহত ভাইদেরকে শিফায়ে কামিলা দান করুন। এবং ভাইদের পরিবারকে ধৈর্য ধরার তাওফীক দান করুন। এবং উলামা,ত্বলাবা ও ধর্মপ্রাণ মুসলিমদেরকে এটা হৃদয়ঙ্গম করার তাওফীক দান করুন যে, শুধুমাত্র মিটিং, মিছিল ও শান্তিপূর্ণ আন্দোলন, সমাবেশ করে এই তাগুত,জালিম,যিন্দিক,মুরতাদ হাসিনা ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের(আওয়ামী লীগ, ছাত্রলীগ, যুবলীগ ইত্যাদি) ও মুশরিক,জালিম, কসাই মোদি ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের(আর এস এস,বি জি বি,বজরং দল,শীব সেনা ইত্যাদি) জুলুম,নির্যাতন,হত্যা,ধর্ষণ থেকে নিষ্কৃতি পাওয়া আদৌ সম্ভব নয়। এদের হাত থেকে রেহাই পাওয়ার একটাই পথ যেটা বহু আগে থেকেই আমাদের (আক্বেল,বালেগ, মুসলমান) উপর ফরজ হয়ে আছে(জিহাদ ফী সাবীলিল্লাহ)।যা থেকে আমরা প্রতিনিয়তই গা ঢাকা দিয়ে চলতেছি।আর মিছিল করলে শুধুমাত্র গণসচেতনতার জন্য করা যাইতে পারে। কিন্তু শুধুমাত্র মিটিং,মিছিলকেই হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করা এবং ইমানী দায়িত্ব শেষ হয়ে গেছে এটা মনে করা ঠিক হবে না। আল্লাহ তায়ালা আমাদেরকে গোটা তাগুতী শক্তির বিরুদ্ধে সশস্ত্র সংগ্রামে ঝাঁপিয়ে পড়ে তাদেরকে পদদলিত করে সারা পৃথিবীব্যাপী ইসলামী খিলাফত প্রতিষ্ঠা করার এবং সমস্ত জাতীয়তাবাদী নাপাক পতাকাকে ভূলুণ্ঠিত করে একমাত্র কালিমার পতাকাকে সুউচ্চে আরোহণ করার তাওফীক দান করুন। আমীন ইয়া রব্বাশ শুহাদায়ি ওয়াস সালিহীন।

  2. যখনই আমরা কুরআন সুন্নাহ বাদ দিয়ে মানব রচিত পথ অবলম্বন করবো, তখন লানচনা অপমান আমাদের গর্দানে চেপে বসবে।

    তাই আমাদের রবের দেখানো পথ জিহাদের দিকে ফিরে আসা দরকার

    আল্লাহ মুসলিমদের কে সত্য বুঝার তাওফিক দন করুন। আমিন

  3. আমাদের দেশের আলেমদের উক্তি “আমরা মাজলুম, আমরা শুধু মাইর খাবো কখনো দিবো না” ব্যাস জনগণ এর উপর খুব আমল করছে। দেখে মনে হয় ফরযে আইন আদায় করছে!😂😂

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন