কথিত গোরক্ষকদের শাসনাধীন রাজ্যে ১৪০ টি গরুকে নিষ্ঠুর উপায়ে খাদে ফেলে হত্যা!

1
1666
কথিত গোরক্ষকদের শাসনাধীন রাজ্যে ১৪০ টি গরুকে নিষ্ঠুর উপায়ে খাদে ফেলে হত্যা!

ভারতের হিন্দুত্ববাদী বিজেপি সরকারের শাসনামলে গোরক্ষার নামে যত্রতত্র মুসলিমদের পিটিয়ে মারার ঘটনা অনেকটা রেওয়াজে পরিণত হয়েছে। গরু জবাই, গোমাংস বহন ও রাখার ‘অপরাধে’ হিন্দুত্ববাদীরা মুসলিমদেরকে পিটিয়ে হত্যা পর্যন্ত করে। অনেক রাজ্যে তারা গরু জবাই নিষিদ্ধ পর্যন্ত করেছে।

অথচ বিজেপি শাসিত রাজ্য মধ্যপ্রদেশের রেওয়া জেলাতেই কিনা খাদে ফেলে ১৪০টি গরুকে অত্যন্ত কষ্টদায়ক উপায়ে হত্যা করা হল। এই অবলা গরুগুলোর অপরাধ, এদের দুধ দেওয়ার ক্ষমতা শেষ হয়ে গিয়েছে। তাই ফসল বাঁচাতে এই গরুগুলিকে খাদে ফেলে দেয়া হয়। তাহলে কি তাদের গো-ভক্তি গরুর দুধ দেওয়ার সময় পর্যন্ত বলবত থকে কিনা – এমন প্রশ্ন আসছে বিভিন্ন মহল থেকে।

যে হিন্দুত্ববাদীরা তাদের কল্পিত দেবতার সম্মান রক্ষার্থে মুসলিমদের প্রাণে মারতে দ্বিধাবোধ করে না, তারাই কিনা নিজেদের ‘দেবতা’কে খাদে ফেলে দিয়ে অত্যন্ত নৃশংস উপায়ে হত্যা করলো! আর এখন পর্যন্ত কোন হিন্দুত্ববাদী সংগঠন এর প্রতিবাদ জানায়নি বা গো-হত্যায় জড়িত হিন্দুদের শাস্তিও দাবি করেনি কেউ!

এথেকে অন্তত এবিষয় স্পষ্ট হল যে, গরুর প্রতি শ্রদ্ধা বা ভালবাসা থেকে তাদের গোরক্ষা কমিটিগুলো মুসলিমদের পিটিয়ে হত্যা করে না। এর পেছনে মূল কারণ তাদের ইসলাম বিদ্বেষ, মুসলিমদের প্রতি তাদের মনের আক্রোশ- যা তারা অন্তরে লালন করে আসছে প্রজন্ম থেকে প্রজন্মান্তরে।

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন