রিজার্ভ মুক্তির দাবিতে ইসলামী ইমারাতে আফগানিস্তানে সাধারণ মানুষদের বিক্ষোভ

ওবায়দুল ইসলাম

0
883
রিজার্ভ মুক্তির দাবিতে ইসলামী ইমারাতে আফগানিস্তানে সাধারণ মানুষদের বিক্ষোভ

অ্যামেরিকা ও কথিত আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দ্বারা জব্দকৃত সাধারণ আফগান জনগণের বিলিয়ন ডলারের সম্পদ মুক্ত করার দাবিতে গত মঙ্গলবার দেশটির রাজধানী কাবুলে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন হাজার হাজার মানুষ। এটি তালেবান সরকার দ্বারা অনুমোদিত একটি বিরল প্রতিবাদ। কারণ, দেশটি একটি বড় অর্থনৈতিক সঙ্কটের বিরুদ্ধে লড়াই করছে৷ আফগান পিপলস মুভমেন্ট নামে একটি স্বল্প পরিচিত একটি গোষ্ঠী মঙ্গলবারের বিক্ষোভটি আয়োজন করে।

মঙ্গলবারের এই মার্চে স্পষ্টতই তালিবানদের সম্মতি ছিল। তালেবানের সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাকাউন্টে একাধিক ছবি এবং ভিডিও ক্লিপ দেখানো হয়েছে। সেখানে দেখা যায় অংশগ্রহণকারীরা সাধারণ নাগরিকদের পক্ষে কথা বলেছেন। মধ্য কাবুলের একটি স্কোয়ারের কাছে একদল বিক্ষোভকারীকে দেখা যায় ‘Let US EAT’ (আমাদেরকে খেতে দিন) লেখা ব্যানার বহন করতে।

বিক্ষোভের আয়োজক শফিক আহমেদ রহিমি এএফপিকে বলেন, ‘আমাদের প্রধান দাবি হচ্ছে, যুক্তরাষ্ট্র যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আমাদের সম্পদ ছেড়ে দেবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘এটা জাতির সম্পদ, কোনো একক ব্যক্তি, গোষ্ঠী বা সরকারের নয়।’

তালেবানরা গত ১৫ আগস্ট ক্ষমতায় ফিরে আসার পর, আফগানিস্তানের প্রায় ১০০ কোটি ডলারের বৈদেশিক সম্পদ আমেরিকা জব্দ করে নেয়। এতে দেশটি একটি বড় মানবিক সঙ্কটের মুখে পড়ে যায় এবং জাতিসংঘ এ ব্যপারে মন্তব্য করে বলে যে আফগানিস্তানের ৩ কোটি ৮০ লাখ মানুষের মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি এই শীতে ক্ষুধার্ত থাকবে।

অথচ শত-সহস্র সাধারণ আফগান নাগরিকের অংশগ্রহণে আয়োজিত এই বিক্ষোভ কোন মেইনস্ট্রিম মিডিয়া আউটলেট প্রচার করেনি। অথচ ৮-১০ জন আফগান নারী যখন কুরুচিপূর্ণ প্লেকার্ড হাতে নিয়ে পশ্চিমাদের শিখানো কথিত নারী অধিকারের নামে কাল্পনিক দাবি তুলেছিল, সেই অতি ক্ষুদ্র জনউপস্থিতি ঠিকই মিডিয়ায় জায়গা করে নিয়েছিল।

বিশ্লেষকেরা বলছেন- এখন সময় হয়েছে আমেরিকার এই বিষয়টি প্রমাণ করে দেখানোর যে, তারা আসলেই মানবাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য কাজ করে কিনা। যদি সত্যিই তারা মানবাধিকারের ব্যপারে শ্রদ্ধাশীল হয় তাহলে তাদের উচিত হবে সাধারণ আফগানদের সম্পদ মুক্ত করে দেওয়া।

তথ্যসূত্র:
—–
১। রিজার্ভ মুক্ত করার দাবিতে কাবুলে আফগাদের বিক্ষোভ
https://tinyurl.com/yhdfcp4b

২। Huge rally on kbul city streets. Western journalists no where to be seen
https://tinyurl.com/bdhc8hfr

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন