শত্রু শিবিরে আশ-শাবাবের অসাধারণ হামলা: ২৭ গাদ্দার সেনা নিহত

ত্বহা আলী আদনান

1
115

মধ্য সোমালিয়ার জালাজদুদ রাজ্যে সামরিক বাহিনীর বিরুদ্ধে বড় ধরণের সামরিক অভিযান শুরু করেছে আশ-শাবাব। এতে এখন পর্যন্ত ২৭ সৈন্য নিহত হয়েছে।

আঞ্চলিক সূত্র থেকে জানা গেছে, আজ ১৭ জুন শুক্রবার ভোরে জালাজদুদ প্রশাসনের গাদ্দার মিলিশিয়াাদের বিরুদ্ধে ভারী অভিযান চালিয়েছেন ইসলামি প্রতিরোধ বাহিনী হারাকাতুশ শাবাব। এদিন ভোরে নামাজের পর পরই রাজ্যটির ‘বাদো’ এলাকায় প্রচণ্ড এক লড়াই শুরু হয়, যা কয়েক ঘন্টা ধরে চলতে থাকে। আর আশ-শাবাবের এই অভিযানের লক্ষ্যবস্তুতে পরিণত হয় পশ্চিমা সমর্থিত সোমালি সামরিক বাহিনী এবং তাদের মিলিশিয়া সদস্যরা।

সূত্র আরও জানায় যে, আশ-শাবাব ওই অঞ্চলে গাদ্দার সামরিক বাহিনীর ঘাঁটি লক্ষ্য করে হামলা চালায়িছে। সেখানে বিকট শব্দে বোমা বিস্ফোরণ ও তীব্র গোলাগুলির শব্দ শোনা গিয়েছে।

আশ-শাবাবের একজন মুখপাত্র বলেছেন, “বাদোর যুদ্ধে, আমরা ২৭ গাদ্দারকে হত্যা করেছি, যারা এলাকায় জড়ো হয়েছিল। আর নিহতদের মধ্যে নেতৃত্ব দেওয়া নেতারাও ছিল। আর অভিযান শেষে আমাদের বাহিনী তাদের ঘাঁটিতে ফিরে আসে।”

স্থানীয়রা জানান যে, আশ-শাবাব দীর্ঘদিন পর দ্বিতীয়বারের মতো ‘বাদো’ এলাকায় অভিযান চালিয়েছে। যদিও আশ-শাবাব যোদ্ধারা গত ২ মাসে বাদো এলাকার আশপাশের অনেক গ্রাম ও বসতির নিয়ন্ত্রণ নিয়েছেন। তবে তাঁরা এই দীর্ঘ সময় বাদোতে কোন অভিযান পরিচালনা করেন নি।

একই সময়ে, প্রদেশের কেন্দ্রস্থল/রাজধানী ধুসমারেব শহরের বিমানবন্দর লক্ষ্য করেও বেশ কয়েকটি মর্টার শেল দিয়ে হামলা চালিয়েছেন আশ-শাবাব যোদ্ধারা। যদিও তাৎক্ষণিকভাবে এই হামলায় হতাহতের সুনির্দিষ্ট কোন সংখ্যা জানা যায়নি।

এটি লক্ষণীয় যে, আল-কায়েদা পূর্ব আফ্রিকান শাখা আশ-শাবাব সম্প্রতি তাদের হামলা বাড়িয়েছে। সেই সাথে জালাজদুদ অঞ্চলে আশ-শাবাবের দুর্দান্ত এই অভিযানটিকে উত্তরে তাদের আধিপত্য বিস্তারের ব্যবস্থা হিসাবে দেখছেন বিশ্লেষকরা।

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন