সোমালিয়ায় মুরতাদ বাহিনীর একটি উচ্চ পর্যায়ের দলকে লক্ষ্য করে আল-কায়েদার হামলা, 60 এর অধিক হতাহত!

0
380

গত শনিবার, আল-কায়েদা পূর্ব আফ্রিকান ভিত্তিক শাখা হারাকাতুশ শাবাব আল-মুজাহিদিন মধ্য সোমালিয়ার মাদাক অঞ্চলের “জালকায়ো” শহরে দেশটির মুরতাদ সরকারী মিলিশিয়ার উচ্চ-পদস্থ কর্মকর্তাদের একটি কাফেলাকে লক্ষ্য করে শহীদ অভিযানের মধ্যদিয়ে অপারেশন শুরু করেন।

এতে মুরতাদ সরকারী মিলিশিয়ার উচ্চ-পদস্থ কর্মকর্তাদের মধ্যে হতে ১০ জনসহ আরো এবং ৫০ জনেরও অধিক হতাহত হয়েছিল।

দেশটির মুরতাদ সামরিক বাহিনীর এক বার্তা হতে জানা যায় যে, হারাকাতুশ শাবাব মুজাহিদিন মুরতাদ মিলিশিয়ার যেই কাফেলাটির উপর আক্রমণটি চালিয়েছিলেন, তাতে পশ্চিমা সমর্থিত সোমালি সরকারের স্থল বাহিনীর কমান্ডার জেনারেল “আবদুল হামিদ দুরার” এবং ব্যাটেলিয়ন নাম্বার 21 এর সেনাবাহিনীর কমান্ডার জেনারেল “কুজি দাকারি” এবং আরো অনেক উচ্চপদস্থ অফিসাররা ছিল।

মুজাহিদদের উক্ত হামলায় জেনারেল “আবদুল হামিদ দুরার” এবং জেনারেল “কুজি দাকারি” ছাড়াও তাদের ৪ জন প্রহরী মারা যায়া এবং আরও 6 জন আহত হয়

সামরিক বাহিনী হতে জানানো হয় যে, বিস্ফোরণটি এমন সময় ঘটানো হয়, যখন তাদের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাদের বহনকারী গাড়িটি সামরিক হোটেল নাম্বার-5 অতিক্রম করতে যাচ্ছিল।

অন্যদিকে জালাজদুদ রাজ্যে, দু’জন সরকারী মিলিশিয়া অফিসার হারাকাতুশ শাবাবের হামলা আহত হয়েছে, যার মধ্যে একজন কেন্দ্রীয় কর্পোরেশনের জালাজদুদ রাজ্যের দোসামরিব শহরের অফিসার, অন্যজন কর্পাস প্রশাসনের অফিসার ও রাষ্ট্রপতি প্রাসাদের উপ-নিরাপত্তা কর্মকর্তা “মাহেদ বদর” ছিলেন। যারা উভয়ই আল-কায়েদা যোদ্ধাদের দ্বারা চালিত বোমা হামলার শিকার হয়।

একইদিনে আল-কায়েদা যোদ্ধারা কেনিয়ান মুরতাদ বাহিনীর একটি কেন্দ্রীয় ঘাঁটিতে আক্রমণ শুরু করেন, যেই ঘাঁটিটি নির্মাণের লক্ষ্য ছিল ‘কেনিয়া সরকার মন্দিরার জেলায় সোমালিয়াকে নিয়ে একটি সীমান্ত প্রাচীর তৈরি করা’ যাতে আল-কায়েদার হাত থেকে নিজেদেরকে রক্ষা করা যায়।

কিন্তু এর আগেই আল-কায়েদা যোদ্ধারা উক্ত ঘাঁটিতে হামলা করে বসে। এতে অনেক সেনা হতাহতের শিকার হয়। বাকি সেনাদেরকে কেনিয়া বিমানে করে নিয়ে পালায়ন করে।

মুজাহিদরা ঘাঁটিটি দখল করার পরে তা পুরোপুরি পুড়িয়ে দেয়, ৪ টি বুলডোজার এবং বেশ কয়েকটি বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম পুড়িয়ে দেয়।

এবং মুজাহিদিন কেনিয়ার সরকারকে এই বার্তা পাঠিয়েছিল যে, কেনিয়ার অধিকৃত সোমালি জমি সোমালিয়ার একটি অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ এবং মুজাহিদগণ তার এক বিন্দু পরিমাণ জায়গাও তাদের ছেড়ে দেবে না।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন