জনগনের অর্জিত টাকা ভাগ-বাটোয়ারা করে খেল সরকারি কর্মকর্তারা

0
743

ব্যাংকে জমা রাখা টাকা কোষাগারে না দিয়ে ভাগ বাটোয়ারা করে নিয়েছেন রাজশাহী শিক্ষা বোর্ডের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। শিক্ষা বোর্ডের অধীনে অষ্টম শ্রেণিতে বৃত্তি পাওয়া শিক্ষার্থীদের জন্য ২৮ কোটি ২১ লাখ টাকা ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের মাধ্যমে দেয়া হয়েছিল। সেই টাকা ব্যাংকে জমা রাখে রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড।

১৯ ডিসেম্বর ব্যাংক থেকে টাকাগুলো উত্তোলনের অনুমোদন দেওয়া হয়। এরপর ২২ ডিসেম্বর টাকা ভাগ বাটোয়ারা করা হয়।

রাজশাহী শিক্ষা বোর্ড সূত্র জানায়, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের মাধ্যমে পাওয়া শিক্ষা ও মেধা বৃত্তির ২৮ কোটি ২১ লাখ টাকা সোনালী ব্যাংকের গ্রেটার রোড শাখায় রাখা হয়।

কিন্তু সেই টাকার কিছু অংশ নিজেদের মধ্যে ভাগ করে নিয়েছেন বোর্ডের চেয়ারম্যান, সচিবসহ কর্মকর্তা-কর্মচারীরা।

শিক্ষা বোর্ডের অডিট শাখা থেকে পাওয়া তথ্যানুযায়ী, চেয়ারম্যান ৩৫ হাজার, সচিব ৩০ হাজার, বৃত্তি শাখায় কর্মরত প্রথম শ্রেণির কর্মকর্তা ২৪ হাজার ৮০০, সহকারী ২১ হাজার ৭০০ টাকা নিয়েছেন। এভাবে চেয়ারম্যান থেকে শুরু করে দৈনিক মজুরি ভিত্তিক কর্মচারীদের মাঝে এই টাকা ভাগ করা হয়েছে।

সুত্রঃ বিডি প্রতিদিন

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন