কুরবানি নিয়ে বিজেপি নেতার মন্তব্যের জবাবে যা বললেন মাওলানা আরশাদ মাদানী

0
548
কুরবানি নিয়ে বিজেপি নেতার মন্তব্যের জবাবে যা বললেন মাওলানা আরশাদ মাদানী

মাওলানা আরশাদ মাদানী বলেছেন, ইসলামে কুরবানির কোনও বিকল্প নেই, এটি একটি ধর্মীয় কর্তব্য যা সম্পন্ন করা প্রত্যেক সামর্থ্যবান মুসলিমের জন্য আবশ্যক।

তিনি বলেন, যার ওপরে কুরবানি ওয়াজিব তাকে যেকোনো অবস্থায় ওই কর্তব্য পালন করা উচিত। তিনি সূর্যোদয়ের ২০ মিনিটের মধ্যে সংক্ষিপ্ত নামাজ ও খুতবার পরে কুরবানির কাজ সম্পন্ন করার পরামর্শ দিয়েছেন। একইসঙ্গে তিনি কুরবানির বর্জ্য এমনভাবে মাটিতে পুঁতে ফেলতে বলেছেন যাতে কোনও দুর্গন্ধ না ছড়ায়।

মাওলানা আরশাদ মাদানী বলেন, ‘বিগত কিছু দিন ধরে গণমাধ্যম এবং বিশেষ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুরবানি সম্পর্কে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে নেতিবাচক এবং বিভ্রান্তিকর প্রচার চলছে।

তিনি বলেন, ‘যে স্থানে কুরবানি হয়ে আসছে এবং বর্তমানে সেই জায়গাতেও যদি বড় পশু কুরবানিতে সমস্যা হয় তাহলে সেখানে অবশ্যই কমপক্ষে ছাগল কুরবানি করতে হবে। করোনা থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য তিনি বেশি বেশি করে আল্লাহ্‌র কাছে দোয়া করা, তওবা ও ইস্তেগফার করার আবেদন জানিয়েছেন। দেশের বর্তমান পরিস্থিতিতে আইনের আওতার মধ্যে দ্বীন ও শরীয়ার ওপরে আমল করার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন জমিয়ত উলামায়ে হিন্দের সভাপতি মাওলানা আরশাদ মাদানী।

এরআগে পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি নেতা অর্জুন সিং মুসলিমদের উদ্দেশ্যে বিভ্রান্তিকর ‘প্রতীকী কুরবানি’ দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছিলেন।

অন্যদিকে, উত্তর প্রদেশের গাজিয়াবাদের লোনি কেন্দ্রের বিজেপি বিধায়ক নন্দকিশোর গুর্জর মুসলিমদের হুমকি দিয়ে বলেন, এ বছর ঈদে পশু কুরবানি দিতে দেওয়া হবে না। আর যদি কুরবানি দিতে হয়, তাহলে নিজের সন্তানকে দিন। নিরীহ পশুগুলোকে মারবেন না। একটি পশুও যাতে কুরবানি না হয় সে ব্যাপারে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এমনকি গাজিয়াবাদ প্রশাসনকে এ বিষয়ে জানাবেন বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন