রামমন্দির নির্মিত হলে নিশ্চিত করোনা ধ্বংস হবে: দাবি নির্বোধ বিজেপি সাংসদের

1
335
রামমন্দির নির্মিত হলে নিশ্চিত করোনা ধ্বংস হবে: দাবি নির্বোধ বিজেপি সাংসদের

করোনা পরিস্থিতি শুরু হওয়ার পর থেকে করোনার দাওয়াই টোটকা নিয়ে ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি নেতা-মন্ত্রীদের অদ্ভূত কথাবার্তা কাজ যেন বেড়েই চলেছে। এবার ভারতের রাজস্থানের বিজেপি সাংসদ জাসকৌর মীনা এক বিস্ফোরক উক্তি করেছেন। বিজেপি এই নেত্রী দাবি করেছেন, অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মিত হলেই করোনা ভাইরাস ধ্বংস হয়ে যাবে। আর এ বিষয়ে তিনি নিশ্চিত।

সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল একটি ভিডিওতে রাজস্থানের এই বিজেপি সাংসদ রাম মন্দির নির্মাণের সঙ্গে করোনার পতনের যোগসূত্র স্থাপন করছেন।

তিনি বলেছেন,”আরে আমরা তো আধ্যাত্বিকতার পূজারি। একবার রাম মন্দির তৈরি হয়ে যাক, দেখবেন নিশ্চিতভাবেই করোনা ভাইরাস ধ্বংস হয়ে যাবে।” বিজেপি সাংসদের এই মন্তব্যে নেটদুনিয়ায় হাসাহাসি শুরু হয়ে গিয়েছে।

উল্লেখ্য, এর আগে মধ্যপ্রদেশ বিধানসভার প্রোটেম স্পিকার তথা বিজেপি নেতা রামেশ্বর শর্মা একই কথা বলেছেন। তাঁকে বলতে শোনা যায়, “খালি ভারত নয়। করোনার প্রকোপে ত্রস্ত গোটা বিশ্ব। আর এই সময় সবাই মহাপুরুষদের স্মরণ করে। এমনকী সুপ্রিম কোর্টও মন্দির নির্মাণের নির্দেশ দিয়েছে। ভগবান রাম আগেও রাক্ষসদের হত্যা করে মানবজাতিকে রক্ষা করেছেন। যখনই মন্দির নির্মাণ শুরু হবে, তখন থেকেই করোনা ধ্বংস হওয়া শুরু হবে।”
অথচ, ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত খবরে জানা গেছে, কোভিড আক্রান্ত হয়েছে রাম মন্দিরের পুরোহিত। আক্রান্ত হয়েছেন ‘রাম জন্মভূমির’ নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ১৬ জন পুলিশকর্মী।

করোনা আক্রান্ত পুরোহিতের নাম প্রদীপ দাস। তিনি রাম মন্দিরের প্রধান পুরোহিতের সহকারী। দাস নিজেই জানিয়েছেন করোনা আক্রান্ত হওয়ার কথা। মন্দির ট্রাস্ট জানিয়েছেন, ওই জায়গায় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা ১৬ জনও পুলিশেরও করোনা রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। অযোধ্যায় এখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩৭৫। উত্তরপ্রদেশে করোনা আক্রান্ত ২৯,৯৯৭।
এর আগেও বিজেপির বহু শীর্ষস্থানীয় নেতা করোনা রুখতে বিভিন্ন রকম ‘আজব’ পরামর্শ দিয়েছেন। এদের মধ্যে সাধ্বী প্রজ্ঞার দিনে পাঁচবার হনুমান চালিশা পাঠ, অর্জুন রাম মেঘওয়ালের ‘ভাবিজি পাপড়’ খাওয়া উল্লেখযোগ্য। নেটদুনিয়ায় এদের নিয়েও হাসাহাসি কম হয়নি।

আগামী কয়েক দিনের মধ্যেই ভারতের অযোধ্যায় শহিদ করা বাবরি মসজিদের জায়গায় রামমন্দির নির্মাণের কাজ শুরু হতে চলেছে। লাদাখে ভারত চীনের মধ্যে চলমান উত্তেজনা, করোনায় লাখ লাখ মানুষের আক্রান্ত হওয়া ইত্যাদি কোনো পিছুটানই হয়তো ভারতকে এই দুর্ভাগ্য থেকে সরাতে পারবে না।

ইতিমধ্যে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনে ডাক পেয়েছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার জন্য ৩ এবং ৫ অগাস্টকে কথিত ‘শুভদিন’ হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে যে কোনও এক দিন ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন হবে।

১টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন