হিজাব পরার কারণে হয়রানি, পদত্যাগ কলকাতার অধ্যাপিকার

1
259

ভারতের কলকাতার এলজেডি আইন কলেজের সহকারী অধ্যাপিকা সানজিদা কাদের হিজাব পরার কারণে মানসিক হয়রানির শিকার হয়ে পদত্যাগ করেছেন। তার হিজাব অপসারণের জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষের ক্রমাগত চাপের কারণে শেষ পর্যন্ত গত ৫ জুন তিনি চাকরি ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন।

পশ্চিমবঙ্গের বীরভূম জেলার মুরারই ব্লকের বাসিন্দা সানজিদা কাদের। তিনি কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এলজেডি আইন কলেজে দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে অধ্যাপনা করছিলেন। গত রমজান মাস থেকে তিনি ধর্মীয় আচার-অনুষ্ঠান মেনে হিজাব পরা শুরু করেছিলেন।

গণমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, গত ৩০ মে কলেজের অফিস সহকারী অশোক দাস হঠাৎ তাকে হিজাব পরে কলেজে ঢুকতে না দেওয়ার কথা জানায়। হিজাব পরা নিষিদ্ধ করার কারণ জানতে চাইলে অশোক দাস জানায়, ‘এটা আমাদের কলেজের ড্রেস কোডের লঙ্ঘন।’ এরপর গত ৫ জুন কলেজ কর্তৃপক্ষের চাপে পরে তিনি পদত্যাগ করেন।

পদত্যাগপত্রে সানজিদা কাদের লিখেছেন, ‘কলেজ কর্তৃপক্ষের হিজাববিরোধী নীতির কারণে আমি পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছি। আমাকে হিজাব খুলতে বলা আমার ধর্মীয় বিশ্বাস ও মূল্যবোধের সঙ্গে সাংঘর্ষিক।’

সানজিদা কাদের গণমাধ্যমে বলেছেন, ‘বেশ কিছুদিন ধরে হিজাব পরে কলেজে যাচ্ছি। আমাকে কেউ কখনো বাধা দেয়নি। আর এই প্রথম শুনলাম অধ্যাপকদের ড্রেস কোডের বিষয়টি। কলেজের ওয়েবসাইটে বা কলেজ নির্দেশিকায় হিজাব পরা যাবে না, এমন কিছু উল্লেখ নেই। আমি কর্তৃপক্ষকে জিজ্ঞাসা করেছিলাম যে পাগড়ি পরা শিখকে ক্লাসে অংশ নিতে দেওয়া হবে কিনা। তারা বলেছিল যে শিখের বিষয়টি আলাদা এবং আমি এখানে হিজাব পরতে পারব না, কারণ এটি কোনও ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান নয়। কোনো ধর্মীয় কর্মকাণ্ড ছাড়া একটি ‘নিরপেক্ষ স্থান’ তৈরি করতে চায় তারা। এই কলেজ যদি ‘নিরপেক্ষ স্থান’ হয়, তাহলে এখানে সরস্বতী পূজা ও হোলি উৎসব কীভাবে পালিত হতে পারে? জানতে চাইলে কর্তৃপক্ষ কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি।’

এলজেডি আইন কলেজের চেয়ারম্যান গোপাল দাস বলেছে, ‘আমাদের ড্রেস কোডে ধর্মীয় কিছু অনুমোদিত নয়।’ শিখ পাগড়ি পরলে কী হবে, এই প্রশ্নের উত্তরে গোপাল বলেছে, ‘পাগড়িতে কোনও সমস্যা নেই।’ তাহলে হিজাবের প্রতি বৈষম্য কেন? এই প্রশ্নে কলেজের চেয়ারম্যান কোনো সদুত্তর দিতে পারেনি।

পুরো বিষয়টি উল্লেখ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে উদ্বেগ প্রকাশ করে সানজিদা কাদের বলেছেন, আমার সাথে যা ঘটেছে তা ইসলাম বিদ্বেষ।


তথ্যসূত্র:
1. Kolkata Professor Resigns Over ‘Harassment For Wearing Hijab’
https://tinyurl.com/nesrrj2r

১টি মন্তব্য

  1. দাওয়াইলাল্লাহ ফোরাম কয়েকদিন যাবৎ ভিজিট করতে পারতেছি না। ফোরামে কোন সমস্যা হয়েছি কি ? না সিকিউরিটি ব্যাক আপের জন্য সাময়িক সময়ে ফোরাম বন্ধ থাকছে। মুহতারাম ভাই, আশা করি আপনি আমার কমেন্ট পড়বেন এবং সঠিক উত্তর দিবেন।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধলেবাননে মসজিদে ইসরায়েলি বাহিনীর হামলা
পরবর্তী নিবন্ধমানসিলা যুদ্ধ: বুরকিনায় নিপীড়িতদের পক্ষে আল-কায়েদার দুঃসাহসী অভিযান