স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অস্বাস্থ্যকর বক্তব্যে হতবাক দেশবাসী

0
1378
স্বাস্থ্যমন্ত্রীর অস্বাস্থ্যকর বক্তব্যে হতবাক দেশবাসী

দেশে পারসোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্টের (পিপিই) এখনো তেমন প্রয়োজন নেই বলে মন্তব্য করেছেন তাগুত সরকারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

আজ সোমবার  স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে করোনা পরিস্থিতি নিয়ে ব্রিফিংয়ে ডাক্তারদের ব্যক্তিগত নিরাপত্তা সরঞ্জাম (পিপিই) নেই, এ বিষয়ক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, //‘চীনে যখন করোনাভাইরাস ধরা পড়েছিল, তখন তাদের কাছেও পিপিই ছিল না। এখনো আমাদের পিপিই অতটা দরকার নেই।’//

চিকিৎসকদের নিরাপত্তার জন্য একান্ত প্রয়োজন পারসোনাল প্রোটেকশন ইকুইপমেন্টের (পিপিই) । পিপিই ছাড়া করোনাভাইরাসের চিকিৎসা করা অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ । সুচিকিৎসার জন্য চিকিৎসকদের সুরক্ষা দেয়া যখন সবচেয়ে জরুরি তখন স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এরকম অস্বাস্থ্যকর কথা দেশবাসীকে হতবাক ও ক্ষুব্ধ করেছে । পাশাপাশি তার অযোগ্যতা ও কান্ডজ্ঞানহীনতার প্রকাশ ঘটেছে এ কথার মধ্য দিয়ে । শুধু মাত্র ইতালিতে ১৮ মার্চ পর্যন্ত ৫ জন চিকিৎসক ও ১৩ জন স্বাস্থ্যকর্মী মারা গেছেন; আক্রান্ত হয়েছেন আড়াই হাজারের বেশি স্বাস্থ্যকর্মী। বর্তমানে সারা পৃথিবীতে সংখ্যাটা আরো অনেক বেশি । স্পষ্টতই বোঝা যাচ্ছে চিকিৎসকরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছেন তাই চিকিৎসকের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা নিশ্চিতকরন প্রয়োজন । আর জাহিদ মালেক মতে বোঝা যায় , চিকিৎসকদের জীবনের কোন মূল্য নেই তার সরকারের কাছে ।

ইতোমধ্যে পিপিই এর জন্য ধর্মঘট শুরু করেছে খুলনা মেডিকেল কলেজের কনসালটেন্টরা । বিভিন্ন চিকিৎসক সংগঠন সরকারের কাছে সর্বোচ্চ নিরাপত্তা ব্যবস্থার দাবি জানাচ্ছে ‌। আর দায়িত্ব পালন করতে না পেরে বরং স্বাস্থ্যমন্ত্রী বড় গলায় বলছেন পিপিই’র প্রয়োজন নেই । যা চরম অবিবেচকের মতো কথা ।

অবিবেচক দায়িত্বজ্ঞানহীন জালেম স্বাস্থ্যমন্ত্রী গণমাধ্যমের উদ্দেশে আরো বলে,
// আপনারা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের জন্য অনেক লিখেছেন, চাপ তৈরি করেছেন। কিন্তু স্কুল বন্ধ দেওয়ার পরে আমরা কী দেখলাম? সবাই বেড়াতে চলে গেল। আপনারা বেড়াতে যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে লিখলেন না। স্কুল বন্ধ দেওয়া হয়েছিল ঘরে থাকার জন্য, বেড়াতে যাওয়ার জন্য না।’ //

যেখানে স্কুল বন্ধে শিক্ষার্থীদের করণীয় জানাতে ব্যর্থ হয়েছে তাগুত প্রশাসন বরং তারাই আবার নিজেদের দোষ সচেতন মানুষদের ঘাড়ে চাপানোর হীন প্রয়াস চালাচ্ছেন । করোনা ভাইরাস প্রথম দেখা দেয় চীনে আজ থেকে প্রায় তিন মাস পূর্বে । এ তিন মাস কোন ধরনের দৃশ্যমান পূর্ব প্রস্তুতি না নিয়ে তারা ব্যস্ত ছিল মুজিব বর্ষ পালনের প্রস্তুতি নিয়ে । আর তাদের এই অবস্থাপনায় করোনা ছড়িয়ে গেছে সারা বাংলাদেশে । নিত্য ভারী হচ্ছে আক্রান্ত আর লাশের মিছিল । তবুও এই জালেম সরকারের দায়িত্বানুভূতি জাগ্রত হয়না । যার জলজ্যান্ত প্রমাণ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর এই অস্বাস্থ্যকর বক্তব্য ।


লেখক: রেদোয়ান সায়িদ, ইসলামী চিন্তাবিদ।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন