ইতালি, ফ্রান্সের চেয়ে বেশি আক্রান্ত রাশিয়া ও ব্রাজিলে

0
144
ইতালি, ফ্রান্সের চেয়ে বেশি আক্রান্ত রাশিয়া ও ব্রাজিলে

করোনাভাইরাস ঠেকাতে লকডাউন আরোপ করা হলেও সংক্রমণ থেমে নেই ব্রাজিল ও রাশিয়ায়। আক্রান্তের সংখ্যার দিক থেকে দেশ দুটি ছাড়িয়ে গেছে এক সময় বিপর্যস্ত দেশ ইতালি ও ফ্রান্সকে। আক্রান্তের দিক থেকে করোনার বিপর্যস্তের তালিকায় বর্তমানে রাশিয়া ও ব্রাজিলের অবস্থান তৃতীয় এবং পঞ্চম স্থানে।

আজ রোববার পর্যন্ত রাশিয়া ও ব্রাজিলে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ইতালি ও ফ্রান্সের তুলনায় বেশি বলে সংবাদ প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

সফটওয়্যার স্যলুশন কম্পানি ডারাক্সের পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারে প্রকাশিত তথ্যমতে, আক্রান্তের দিক থেকে সারা বিশ্বে রাশিয়ার অবস্থান এখন তৃতীয়। রাশিয়ায় এখন পর্যন্ত ২ লাখ ৭২ হাজার ৪৩ জন এই মহামারিতে আক্রান্ত হয়েছে, যেখানে ইতালিতে আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ২৪ হাজার ৭৬০ জন। তবে দেশটিতে চীনের তুলনায় মৃত্যুর হার বেশ কম। এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ২ হাজার ৫৩৭ জনের।

রাশিয়ায় গতকাল শনিবার একদিনে আক্রান্ত হয়েছে ৯ হাজার ২৮৭ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ১১৯ জনের। করোনায় আক্রান্ত হয়েছে রাশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মিখাইল মিশুস্তিন এবং প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ।

করোনায় আক্রান্তের দিক থেকে তালিকার পঞ্চম স্থানে উঠে এসেছে ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। করোনাভাইরাসে বেশ সঙ্কটে পড়েছে ব্রাজিল। দেশটির সর্বত্র এমনকি ৩৮টি আদিবাসী গোষ্ঠির মধ্যেও এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত এই মহামারিতে আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ৩৩ হাজারের বেশি মানুষ এবং মৃত্যু হয়েছে ১৫ হাজার ৬৬২ জনের।

ব্রাজিলে গতকাল একদিনে আক্রান্ত হয়েছে ১৪ হাজার ৯১৯ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৮১৬ জনের। এর আগে গত শুক্রবার ব্রাজিলে একদিনে রেকর্ড সর্বোচ্চ ১৫ হাজারের বেশি মানুষের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

সর্বোচ্চ আক্রান্তের দিনেই পদত্যাগ করেছেন ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী নেলসন তেচ। দায়িত্ব নেওয়ার এক মাসের মধ্যে ব্রাজিলের এই স্বাস্থ্যমন্ত্রী পদত্যাগ করেছেন। এর আগে চিকিৎসা পরিষেবার ব্যর্থতার কারণে গত ১৬ এপ্রিল দেশটির সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী লুইজ মানদেত্তাকে তার পদ থেকে সরিয়ে দিয়েছিলেন প্রেসিডেন্ট জায়ের বোলসোরানো। আমাদের সময়

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন