আফগানিস্তানের বৃহত্তম সামরিক ঘাঁটি বাগরাম থেকে সরে গেছে ক্রুসেডার মার্কিন বাহিনী

16
1596
আফগানিস্তানের বৃহত্তম সামরিক ঘাঁটি বাগরাম থেকে সরে গেছে ক্রুসেডার মার্কিন বাহিনী

ক্রুসেডার মার্কিন ও পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটো আফগানিস্তান থেকে সরে যাওয়ার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে, এক্ষেত্রে ক্রুসেডার মার্কিন সেনারা শুক্রবার আফগানিস্তানে তাদের বৃহত্তম ঘাঁটি বাগরাম বিমানবন্দর থেকে নিজেদের সকল সৈন্যকে সরিয়ে নিয়েছে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা বিভাগের আধিকারিকরা নাম প্রকাশ না করার শর্তে এএফপি কে বলেছে যে, শুক্রবার রাতে সমস্ত মার্কিন সেনা বাগরাম এয়ারবেস থেকে সরে এসেছে।

IMG-20210702-205730

তালিবান ও মিত্র আল কায়েদার জানবায মুজাহিদদের বিরুদ্ধে ক্রুসেডার মার্কিন সামরিক অভিযানে বাগরাম এয়ারবেস সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে। সিনিয়র কাবুল কর্মকর্তারা বলেছে, সামরিক ঘাঁটিটি আফগান বাহিনীকে হস্তান্তর সম্পর্কে আনুষ্ঠানিকভাবে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

তালিবান মুখপাত্র জাবিহুল্লাহ মুজাহিদ এক বিবৃতিতে বাগরাম এয়ারবেস থেকে সেনা সরিয়ে নেওয়া একটি ইতিবাচক পদক্ষেপ হিসাবে উল্লেখ করে বলেছেন, এটি উভয় পক্ষের স্বার্থেই কল্যাণকর। মুখপাত্র বলেছেন, বিদেশি বাহিনীর পুরোপুরি প্রত্যাহার আফগান জনগণের শান্তি ও সুরক্ষা নিশ্চিত করতে বড় ভূমিকা রাখবে।

ক্রুসেডার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ১৯৫০ সালে বাগরাম এয়ারবেস তৈরি করেছিল এবং ২০২১ সালে তালিবান সরকারের পতনের পর থেকে এই ঘাঁটিটি আল-কায়েদা ও তালিবান মুজাহিদ বন্দীদের আটক রাখতে ও মুজাহিদদের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করতে ব্যবহৃত হয়েছে।

IMG-20210702-205736

ক্রুসেডার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং তালিবানদের মধ্যে হয়ে যাওয়া একটি শান্তি চুক্তির আওতায় দখলদার বিদেশি সেনারা আফগানিস্তান থেকে সরে যাচ্ছে ।

মার্কিন রাষ্ট্রপতি জো বিডেন আফগানিস্তান থেকে আগামী ১১ ই সেপ্টেম্বর, ২০২১ এর মধ্যে পুরোপুরি সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে।

অন্যদিকে, তালিবানরা গত দুই মাসে আফগান বাহিনীর বিরুদ্ধে তাদের তীব্র অভিযান চালিয়ে শতাধিক জেলা দখল করে নিয়েছেন।

16 মন্তব্যসমূহ

  1. কমেন্ট বা মন্ত্যব্য আমি না করলে কিছু আসে যায়না৷কারণ , হাজারো লোক আছে যারা খুবই সুন্দর ও আকর্ষনীয় মন্তব্য করবে ৷ সেখানে আমি কিছু লিখে নিউজকে কলুষিত করতে চাইনা ৷

    তবে এটা তো অবশ্যই বলবো যে, আলহামদুলিল্লাহ, ছুম্মা আলহামদুলিল্লাহ

  2. ভাইগণ! আপনারা কমেন্ট করেন না কেন?
    সবাই বেশী করে কমেন্ট করলে ভালো হয় না?!
    আমি এই পত্রিকার নতুন পাঠক। কমেন্ট কম দেখে খারাপ লাগে।
    সবাই বলে যাই নিজেদের মনের কথাগুলো।
    কমেন্টও তো হতে পারে একটা দাওয়াতি অঙ্গন।
    আমার কমেন্ট দ্বারা অন্য ভাইয়ের উপকারও তো হতে পারে। প্লিজ, সবাই কমেন্ট করুন।
    তবে নাম, ইমেইল সব ভুয়া দিবেন কিন্তু!
    আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি এ পথে নতুন এসেছি।

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন