হলুদ মিডিয়ার মিথ্যাচার; হেলিকপ্টারে করে ‘ফাঁসি’ নয় পতাকা লাগাচ্ছিল তালেবান (ভিডিও)

3
2279
হলুদ মিডিয়ার মিথ্যাচার; হেলিকপ্টারে করে ‘ফাঁসি’ নয় পতাকা লাগাচ্ছিল তালেবান (ভিডিও)

সম্প্রতি ইন্টারনেটে ভাইরাল হওয়া এক ভিডিওতে দেখা যায়, হেলিকপ্টারের সাথে দড়ি দিয়ে বাঁধা একজন ঝুলছেন। এই ভিডিওটি নিয়ে ভারতীয় গণমাধ্যমসহ হলুদ মিডিয়াগুলোতে বিভিন্ন খবর প্রচারিত হয়। ফেসবুক ও টুইটারে ব্যপক আলোচিত এই ভিডিওটি পোস্ট করে অনেকেই দাবি করেছে, আমেরিকানদের সাথে দোভাষীর কাজ করার অপরাধে তালেবান তাকে বিমানে করে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করেছে। তবে জানা গেলো এমন দাবি সম্পূর্ণ মিথ্যা।

বিভিন্ন ছবি ও ভিডিও অনুসন্ধান করার পর ভারতীয় সংবাদমাধ্যম বুম লাইভ জানিয়েছে, ওই ব্যক্তি জীবিত। তার শরীরে ঝুলে থাকার জন্য উপযুক্ত সরঞ্জাম বাঁধা ছিল।

বুম জানায়, বিভিন্ন ভারতীয় গণমাধ্যমে এই ঘটনা নিয়ে টকশোর অনুষ্ঠানও হয়। আজ তক, এবিপি নিউজ এবং আনন্দবাজারও তাদের বিভিন্ন প্রতিবেদনে লেখে যে, এটি তালেবানদের বর্বরতার দৃষ্টান্ত। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম জি নিউজের প্রধান সম্পাদক সুধীর চৌধুরী ভিডিওটি টুইট করে এবং পরে টুইটটি ডিলিট করে দেয়। ভিডিওটি পোস্ট করে সে লিখেছিল, সম্ভবত এক মার্কিন দোভাষীকে তালেবানরা একটি মার্কিন ব্ল্যাকহক হেলিকপ্টার থেকে ঝুলিয়ে ফাঁসি দিয়েছে।

তবে বুম লাইভ অনুসন্ধান করে দেখেছে, ভাইরাল ভিডিওটি প্রথম টুইট করে টুইটার অ্যাকাউন্ট তালিব টাইমস। সেটির ক্যাপশনে বলা হয়, ‘আমাদের বিমান বাহিনী’। বুম জানায়, বিভিন্ন দিক থেকে তোলা ওই ঘটনার ছবিতে, ঝুলে থাকার বিশেষ সরঞ্জাম পরিহিত ওই ব্যক্তিকে হাত নাড়তে দেখা যায়। তা থেকে এটাই প্রমাণ হয় যে, ওই ব্যক্তি জীবিত। তার ঝুলে থাকার সরঞ্জামকে ফাঁসির দড়ি বললে ভুল হবে বলেও জানায় তারা।

খান মুহম্মদ আয়ান নামের একজনের অন্য দিকে থেকে তোলা একই ভিডিওর ক্যাপশন অনুবাদ করে তারা বলে, সেখানে লেখা ছিল, হেলিকপ্টারের সাহায্যে, কান্দাহারের গভর্নরের অফিসের মাথায় নিজেদের পতাকা লাগানোর চেষ্টা করছে তালেবান। মূলত এটাই হলো প্রকৃত দৃশ্য।

এছাড়া কান্দাহারের স্থানীয় রিপোর্টার অর্ঘান্ড আবদুলমানানের পোস্ট করা একই ঘটনার ভিডিওর ক্যাপশন অনুবাদ করে বুম জানায়, পতাকা লাগানোর জন্য একজন সেনা প্লেনটি থেকে ঝুলে থাকেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত পতাকাটি লাগানো সম্ভব হয়নি।

এছাড়া আরও একজন আফগান সাংবাদিক বিলাল সারওয়ারি বলেন, যে আফগান পাইলট প্লেনটি চালাচ্ছেন তাকে উনি চেনেন। এবং ভাইরাল ভিডিওতে যে লোকটিকে দেখা যাচ্ছে তিনি হলেন একজন তালেবান যোদ্ধা, যিনি তালেবানের পতাকা লাগানোর চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু পারেননি।

এছাড়া ভাইরাল ভিডিওটি নিয়ে বিবিসির একটি প্রতিবেদনে বলা হয়, সম্প্রতি কব্জা-করা মার্কিন সরঞ্জামের সাহায্যে, এক সরকারি ভবনে একটি পতাকা লাগানোর চেষ্টা করা হয়েছিল ওইভাবে।

ভিডিওটি দেখুন এখানে। 

3 মন্তব্যসমূহ

  1. আপনি তো দেখি তালেবানদের কেও শিক্ষা দিচ্ছেন যে কাফেরদের সাথে কিভাবে কথা বলা বলতে হবে । অথচ তাদের ঠেলা সয্য করতে না পেরে আমিরিকার লেজ এখন উপরে

মন্তব্য করুন

দয়া করে আপনার মন্তব্য করুন!
দয়া করে এখানে আপনার নাম লিখুন

পূর্ববর্তী নিবন্ধফিল্মি স্টাইলে গুলি করে ২৫ লাখ টাকা ছিনতাই
পরবর্তী নিবন্ধআল-ফিরদাউস সংবাদ সমগ্র || আগস্ট, ২০২১ঈসায়ী ||